বুধবার, ফেব্রুয়ারী 8, 2023
বাড়িরাজনীতিফুরফুরা শরীফে গিয়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের বিক্ষোভের মুখে পরলেন কল্যাণ ব্যানার্জি, দেখানো...

ফুরফুরা শরীফে গিয়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের বিক্ষোভের মুখে পরলেন কল্যাণ ব্যানার্জি, দেখানো হলো কালো পতাকা।

একটা সময় ছিল ফুরফুরা শরিফ মানে তৃণমূল দলনেত্রী সহ অন্যদের নিয়মিত যাতায়াত। ত্বহা সিদ্দিকীর সঙ্গে দলনেত্রী, ফিরহাদ হাকিম সহ আরো বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ। কিন্তু বিগত বছর খানেক সময় ধরে একটু একটু করে এই সম্পর্কে শীতলতা তৈরি হয়েছে তা বেশ বোঝা যাচ্ছিল। রাজ্যের মাইনরিটি মুসলমানদের আস্থাও আর আগের মতো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের প্রতি অটুট রয়েছে কিনা সে বিষয়েও একটা সন্দেহের বাতাবরণ তৈরি হয়েছে। এবার সেটা আরো একটু স্পষ্ট হলো, ফুরফুরা শরিফে গিয়ে বিক্ষোভে মুখে পড়লেন শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার ফুরফুরা শরিফে নির্বাচনী প্রচারে যান এই কেন্দ্রের দুবারের সাংসদ। সেখানে পৌঁছনো মাত্র বিক্ষোভের মুখে পড়েন কল্যাণবাবু। তাঁকে দেখে স্থানীয় সংখ্যালঘু মুসলিম জনতার অনেকেই ক্ষোভে ফেটে পরেন। এমনকি কালো পতাকাও দেখানো হয় তাকে। অবস্থাবেগতিক দেখে তৃণমূল প্রার্থী আর ফুরফুরা শরিফের পূর্ব নির্ধারিত পথ পরিবর্তন করে মুন্ডলিকা চলে যান। এরপরেই আরও ক্ষোভ বেড়ে যায় সেখানে। পদ অবরোধ শুরু করেন উত্তেজিত জনতা।

ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী সাহেব অভিযোগ করেন, তৃণমূল দীর্ঘদিন ধরে সাম্প্রদায়িকতার ভয় দেখিয়ে এলাকায় ভাঁওতাবাজি করছে। তিনি বলেন তারা আর তৃণমূলের ভোট ব্যাংক হিসেবে ব্যবহৃত হবে না। ভোট পেতে হলে এলাকায় উন্নয়ন করতে হবে। তিনি এখানকার স্বাধীনতার পরবর্তী বাংলার প্রথম গ্রামীণ হাসপাতালে দূরবস্থার কথা তুলে ধরেন এবং বলেন যে হাসপাতালের পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা নেই কেনো?এছাড়া স্বাধীনতা সংগ্রামী দাদা হুজুরের নামে কেন বিশ্ববিদ্যালয় হল না? প্রস্তাবিত আই,টি,আই কলেজ কেন এলাকার বিধায়ক স্নেহাশিস চক্রবর্তী জাঙ্গীপাড়ায় স্থানান্তরিত করলেন তার জবাব চাই?
তাঁর আরও অভিযোগ, বিজেপি ও সাম্প্রদায়িকতার ভয় দেখিয়ে সংখ্যালঘুদের ভোট লুট করা যাবেনা। এছাড়া তিনি বলেন যে আমাদের ফুরফুরা উন্নয়ন পর্ষদ একটি কাঠের পুতুলে পরিণত হয়েছে। আমরা চাই এলাকার সার্বিক উন্নয়ন।

তিনি বলেন, ভারতের অন্যতম তীর্থভূমি ফুরফুরা শরীফ আর এই ফুরফুরা শরীফকে কেন্দ্র করে যে ভাবে কল্যাণ ব্যার্নাজী ও স্নেহাশিস চক্রবর্তী নোংরা রাজনীতি করছেন। দাবি পূরণ না হলে তিনি আগামীদিনে বৃহত্তর আন্দোলনের হুসিয়ারি দিয়েছেন।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments