সোমবার, জানুয়ারী 30, 2023
বাড়িঅর্থনীতিরাজ্যের পর্যটন শিল্পেও এবার আসতে চলেছে বেসরকারীকরণের ছোঁয়া:-

রাজ্যের পর্যটন শিল্পেও এবার আসতে চলেছে বেসরকারীকরণের ছোঁয়া:-

সারা দেশে একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থায় বেসরকারীকরণের ধাক্কার কিছুটা রেশ এবার আসতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন ব্যবস্থাতেও। রাজ্য সরকারের বক্তব্য অনুযায়ী রাজ্যের পর্যটনে পেশাদারিত্বের ছোঁয়া আনতে রাজ্য বন দফতরের হাতে থাকা ৩৪টি বাংলোকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। জানা গেছে পেশাদার কোনও সংস্থার হাতেই এইসব বন-বাংলোগুলি হস্তান্তর করা হবে। সূত্রের খবর, ৫ অক্টোবর বন দফতরে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক ছিল। সেই বৈঠকেই এ বিষয়ে সবিশেষ নৈতিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে পর্যটন দফতরের আধিকারিকদের বক্তব্য অনুযায়ী বেসরকারি হাতে বন-বাংলোগুলি তুলে দিলেও এক্ষেত্রে স্থানীয় কর্মসংস্থানের উপরে বাড়তি নজর রাখবে রাজ্যের সরকার। সরকারের লক্ষ্য বেসরকারিকরণের হাত ধরে পর্যটনকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার পাশাপাশি স্থানীয় কর্মসংস্থানের রাস্তাও তৈরি করা।

এবিষয়ে বন দফতর সূত্রে খবর, রাজ্যের বিভিন্ন অভয়ারণ্য এবং বনাঞ্চল ঘিরে বেশ কয়েকটি আকর্ষণীয় বাংলো রয়েছে। ওই সব বাংলো জনপ্রিয় হলেও ঠিকমতো রক্ষণাবেক্ষণ হয় না। যে কারণে বাংলোয় ক্রমশ পর্যটকের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। এরপর আবার করোনা অতিমারীর জেরে অবস্থা আরো শোচনীয় হয়ে উঠেছে। তাতে আখেরে ক্ষতি হচ্ছিল পর্যটন শিল্পের। তাই এবার পর্যটন শিল্পের মরা গাঙে জোয়ার আনতে পেশাদারিত্বের দিকে ঝুঁকছে রাজ্য। রাজ্য বন দফতর ইতিমধ্যে একাধিক পেশাদার সংস্থার সঙ্গে কথা বলেছে।
প্রাথমিক ভাবে ঠিক হয়েছে, দার্জিলিঙের মানেভঞ্জন ট্রেকারস হাট, সামশিঙের মৌচাকী ক্যাম্প, জলপাইগুড়ির নেওড়া ক্যাম্প, জলপাইগুড়ি-লাটাগুড়ির মূর্তি টেন্টস, বাঁকুড়ার ইকো ট্যুরিজম সেন্টার, পুরুলিয়ার মাঠা ট্রি হাউস-সহ ৩৪টি বন-বাংলো বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হবে। জানা গিয়েছে, পর্যটনকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে বনবাংলো ঘিরে বিভিন্ন অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসেরও ব্যবস্থা করবে সংস্থাগুলি।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments