ইউটিউবে ভাইরাল আইটেম সং, দুই তরুণী শিল্পীকে গরম রডের ছ্যাকা সর্বসমক্ষে

ওয়েবডেস্কঃ

সম্প্রতি ইউটিউবে রসগোল্লা নামে একটি আইটেম সং লঞ্চ হয়। এক সপ্তাহের মধ্যেই সেই গান ভাইরাল হয়ে লক্ষাধিক ভিউও হয়। সেই গানে নাচের ভিডিয়ো দেন দুই তরুণী। সেই ভিডিয়োটি অশ্লীল বলে অভিযোগ করে কিছু মানুষ। ওই দুই শিল্পীকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয় কমেন্টের মাধ্যমে।

এবারে শুধু কমেন্ট নয় সরাসরি সর্বসমক্ষে পাশবিক অত্যাচারের শিকার হলো ওই দুই তরুণী। হিন্দি আইটেম সং-এ নাচ করার অপরাধে দুই মহিলা শিল্পীকে গরম রডের ছেঁকা। সঙ্গে চলল বেধরক মারধর। থানায় এফআইআর করেও কোনও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ শিল্পীদের। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১২ সেপ্টেম্বর উত্তর ২৪ পরগনার দোপেরে অঞ্চলে।

জানা গেছে, গত ১২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যাবেলায় উত্তর ২৪ পরগনার দোপেরে এলাকায় দুই শিল্পীর এক বন্ধুর বাড়িতে এই ভিডিয়োর সাফল্যে একটি পার্টির আয়োজন করা হয়। ফেসবুকে তা আগেও লাইভ করে জানান ওই শিল্পীরা। পার্টিতে যোগ দিতে দোপেরেতে পৌঁছতেই গাড়ি থেকে নামতে হঠাৎই মাস্ক পরিহিত দুই দুষ্কৃতী বাইকে করে আসে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই গরম লোহার রড দিয়ে তাঁদের ছেঁকা দেয়। শিল্পীদের হাতে মুখে ও মাথায় আঘাত করা হয়।

পাশাপাশি তাঁদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এরপর বাইকে চেপে দুষ্কৃতিরা পালিয়ে যায়।তাঁদের স্থানীয় বন্দিপুর চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই প্রাথমিক চিকিৎসা করে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়। এই ঘটনায় রহড়া থানায় এফআইআর দায়ের করেন দুই শিল্পী। তাঁদের মতে,যে কোনও শিল্পীর গান গাওয়ার অধিকার রয়েছে। গানটি নিয়ে এবং গানের মধ্যে ব্যাবহৃত ছবি নিয়ে কারও আপত্তি থাকলে তাঁরা জানাতে পারেন। এভাবে শিল্পীদের উপর হামলা ঠিক নয়।

আক্রান্ত এক শিল্পী বলেন, “কোন শিল্পীর গান গাওয়ার অধিকার আছে। গানটি নিয়ে এবং গানের মধ্যে ব্যাবহৃত ছবি নিয়ে কারও আপত্তি থাকলে তাঁরা জানাতে পারেন। এভাবে শিল্পীদের উপর হামলা ঠিক নয়। মহিলা শিল্পী হওয়ার জন্যে আমাদের উপর এভাবে হামলা হল। এই ধরনের ছবি একজন বলিউড সেলিব্রিটি করলে কারও আপত্তি থাকে না। একজন অনামী শিল্পী করলে তাঁদের অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দেওয়া হয়। তাঁদের উপর হামলা চালানো হয়। এটা শুরু নারী নয়, পুরুষদের জন্যও প্রযোজ্য।”

এ বিষয়ে কলকাতা প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন বিশিষ্ট রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী ও চলচ্চিত্র পরিচালক প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায় ও সঙ্গীত পরিচালক শুভদীপ দাস।

18