আন্তর্জাতিক আলোচনা শিবির ইটাহার কলেজে

১৬ ই সেপ্টেম্বর কলেজের আইকিউএস এর উদ্যোগে একটু অন্যরকম আন্তর্জাতিক আলোচনা শিবিরের আয়োজন করা হয়েছিল। এই আলোচনা শিবিরের মূল উদ্দেশ্য- কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন শিক্ষক -শিক্ষিকা, গবেষক তাঁদের বোধ এবং ভাবনা বিকাশের বিষয় নিয়ে। শিবিরের মূল বিষয় ছিল সমাজ বিজ্ঞান গবেষণার আন্তঃবিভাগীয়তা: কিছু কেস স্টাডিজ, সহযোগিতা এবং অর্থায়নের সম্ভাব্য উৎস। কলেজের সত্যজিৎ রায় সেমিনার হলে আয়োজিত এই শিবিরে হাজির হয়েছিলেন গৌড়বঙ্গের তিন জেলা এবং বাইরের বিভিন্ন কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, এম ফিল এবং পিএইচড এর গবেষকগণ।

ভিসা সমস্যার কারণে আলোচনা চক্রের সূচক বক্তা আসতে না পারায় অনলাইনে হাজির ছিলেন বাংলাদেশের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপিকা ড.সালমা আক্তার। অন্যদিকে মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউজিসি, হিউম্যান রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের অধ্যাপক- নির্দেশক অঞ্জন চক্রবর্তী। আলোচনা শিবিরের স্বাগত ভাষণদেন ড. মেঘনাদ সাহা কলেজের ও অধ্যক্ষ ড. মুকুন্দ মিশ্র। উদ্বোধনী ভাষণ দেন কলেজের প্রশাসক অধ্যাপক সুব্রত সাহা। অনলাইনে দীর্ঘক্ষণের সূচক বক্তৃতায় অধ্যাপিকা সালমা আক্তার সমাজবিজ্ঞান বিষয়ের গবেষণার নানাদিক তুলে ধরেন।

টেকনিক্যাল সেশনে অঞ্জন চক্রবর্তী সমাজবিজ্ঞান গবেষণার সাম্প্রতিক বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোকপাত করেন। অঞ্জন বাবু কোলাবরেশান এবং বিভিন্ন আলোচনা চক্র আয়োজনের নানা রকম আর্থিক উৎসের হাল হাকিকত এবং সুলুক সন্ধানও দেন। বক্তা ও অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে দীর্ঘক্ষণের ইন্টারেকশন পর্ব জমে ওঠে। শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং গবেষকরা এই আলোচনা চক্রে অংশগ্রহণ করতে পেরে অনেক অনালোকিত এবং অজানা দিক জানতে সক্ষম হয়।

ধন্যবাদ জ্ঞাপক বক্তব্য পেশ করেন কলেজের আইকিউএসসির কো-অর্ডিনেটর এবং আলোচনা শিবিরের আহ্বায়ক অধ্যাপক সুকুমার বাড়ই। সমগ্র অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন অধ্যাপিকা সঞ্চয়িতা পাল চক্রবর্তী।

14