বিপাকে কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী BJP নেতা ইয়েদুরাপ্পা

ওয়েবডেস্কঃ শুরু থেকে যেন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী । প্রথমর বেলান্দুর এবং দেবারাবীসনহল্লিতে আইটি পার্ক গড়ার জন্য জমি অধিগ্রহণ করে বেআইনি ভাবে তা বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ইয়েদুরাপ্পার বিরুদ্ধে।

এই দুর্নীতি মামলায় নাম জড়ানোয় ২০১১-র অগস্টে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিতে বাধ্য হয়েছিলেন কর্নাটক রাজনীতিতে ‘ইয়েড্ডি’ নামে এই নেতা। জেলেও যেতে হয়েছিল তাঁকে।

কিন্তু, এবারে ফের বিপাকে পড়তে হলো এই প্রবীণ বিজেপি নেতা বি এস ইয়েদুরাপ্পাকে। এবারে অতিরিক্ত নগর ও দায়রা আদালতের বিচারক বুধবার দুর্নীতির এক ব্যক্তিগত অভিযোগের ভিত্তিতে ইয়েদুরাপ্পা ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছে।

ইয়েদুরাপ্পার বিরুদ্ধে অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন তিনি ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা ব্যাঙ্গালোর ডেভেলপমেন্ট অথোরিটির ঠিকা পাইয়ে দেওয়ার বিনিময়ে ঘুষ নিয়েছেন।

যদিও প্রবীণ বিজেপি নেতা বলেন, “এই জাতীয় সব অভিযোগই ভিত্তিহীন। আমি সব মামলায় বেকসুর প্রমাণিত হব। এমনটা হওয়া খুবই স্বাভাবিক। এসব নিয়ে আমি চিন্তিত নই।”

ইয়েদুরাপ্পা ছাড়াও তাঁর ছেলে তথা বিজেপির রাজ্য সহ-সভাপতি বি ওয়াই বিজয়েন্দ্র, তাঁর নাতি শশীধর মারাদি, জামাই সঞ্জয় শ্রী, ব্যবসায়ী চন্দ্রকান্ত রামালিঙ্গম, তৎকালীন বিধায়ক ও ব্যাঙ্গালোর ডেভেলপমেন্ট অথোরিটির চেয়ারম্যান এস টি সোমাশেখর, আইএএস অফিসার জি সি প্রকাশ, কে রবি এবং বীরুপাক্ষের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

চন্দ্রকান্ত রামালিঙ্গমের মালিকাধীন সংস্থা রামালিঙ্গম কনস্ট্রাকশন কোম্পানি প্রাইভেট লিমিটেডের পক্ষে বিডিএর তরফে ওয়ার্ক অর্ডার ইস্যু করা হয়েছিল। ঘুষের বিনিময়ে রামালিঙ্গম কাজের বরাত পেয়েছেন বলেই দাবি আব্রাহামের।

19