বারাণসী আদালতে জ্ঞানব্যাপী মসজিদ মামলার শুনানি

ওয়েবডেস্কঃ জ্ঞানব্যাপী মসজিদের ভিতরে পুজো করতে চেয়ে বারাণসীর আদালতে দ্বারস্থ হন পাঁচ হিন্দু মহিলা। এর আগে জ্ঞানব্যাপী মামলার শুনানিতে আদালত জানিয়েছিল, শিবলিঙ্গকে রক্ষা করুন, সুরক্ষিত করুন। কিন্তু, জ্ঞানবাপী মসজিদে নমাজ বন্ধ করা চলবে না। একই চত্বরে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের নমাজ পড়ার অনুমতি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। Gyanvapi Masjid চত্বরে প্রার্থনার দাবি জানিয়ে হিন্দু ও মুসলিম উভয়পক্ষ কোর্টের দ্বারস্থ হয়। বাবরি মসজিদ মামলার মতো গুরুত্বপূর্ণ রায়ে অংশ নেওয়া দুই বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় এবং পিএস নরসিমহার বেঞ্চেই ওঠে জ্ঞানবাপী মামলা । যে অঞ্চল থেকে শিবলিঙ্গটি মিলেছে ওই জায়গাটি সম্পূর্ণ সিল করার নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। একইসঙ্গে জেলাশাসককে পুরো ব্যবস্থা খতিয়ে দেখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।জেলাশাসক ছাড়াও পুলিশ কমিশনার এবং সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স কমান্ড্যান্ট জ্ঞানবাপী মসজিদের সিল করা এলাকার দায়িত্বে থাকবেন।

জ্ঞানব্যাপী মসজিদ ঘিরে গত কয়েকমাস ধরেই চর্চা চলছে দেশজুড়ে। এ নিয়ে মামলাও চলছে আদালতে। ঘটনায় রতন লাল নামে এক দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর সর্বোপরি এই মসজিদের অধিকার কার তাই নিয়েই চলছিল লড়াই।

আজকে উত্তরপ্রদেশের জ্ঞানব্যাপী মসজিদ মামলার রায় ঘোষণা হবে বারাণসী কোর্টে। প্রসঙ্গত, জ্ঞানব্যাপী মসজিদ চত্বরে রবিবার থেকেই বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে নিরাপত্তা। শহর জুড়ে জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা।

ইতিমধ্যেই নিম্ন আদালতের নির্দেশে জ্ঞানব্যাপী মন্দিরের ভিডিওগ্রাফি করা হয়েছে এবং তার রিপোর্ট জমা দেওয়া হয়েছে গত ১৯শে মে। আপাতত জ্ঞানব্যাপী মসজিদ নিয়ে বারাণসী কোর্ট কি রায় দেয়, সেদিকেই নজর থাকছে বিশেষজ্ঞদের।

21