ভোররাতে নিহত আনিস খানের ভাইএর ওপর প্রাণঘাতি আক্রমণ

ওয়েবডেস্কঃ

মাস কয়েক আগেই ছাত্রনেতা আনিস খানের মৃত্যুর ঘটনায় তোলপাড় হয়েছে রাজ্য রাজনীতি। রাজ্য পুলিশের ওপর ভরসা নেই বলে ফের একবার দাবি করল পরিবার।ছাত্রনেতা আনিস খানের মৃত্যু নিয়ে জট কাটতে না কাটতেই এবার আক্রান্ত আনিস খানের খুড়তুতো ভাই। গতকাল ভোররাত আমতায় বাড়ির সামনেই আক্রান্ত হন বছর ২৪-এর সলমন।

সলমন খানের ওপর ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে বলে অভিযোগ। আনিস-হত্যা মামলায় অন্যতম সাক্ষী এই সলমন। আনিসের মৃত্যুর পর পুলিশ-প্রশাসনের বিরুদ্ধে যে আন্দোলন চলে, তার একেবারে প্রথম সারিতে ছিলেন সলমন। তাঁর ওপর এই ভয়াবহ আক্রমণের ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্কে রয়েছে খান পরিবার। তাঁদের দাবি, নিরাপত্তা চেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হলেও কোনও লাভ হয়নি।

রাতের অন্ধকারে শৌচকর্ম করতে গিয়েছিলেন সলমন। সেই সময় কেউ বা কারা তাঁর ওপর অতর্কিতে আক্রমণ করে বলে অভিযোগ। মাথার পিছন দিক থেকে ক্রমাগত অস্ত্রের কোপ বসানোয় রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন সলমন। তাঁর স্ত্রী এসে সবাইকে ডাকাডাকি করেন। পরে সলমনকে আক্রান্ত অবস্থায় বাগনান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উলুবেরিয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন তিনি।

আনিস খানের মৃত্যুর পর থেকে হুমকি দেওয়া হত তাঁর খুড়তুতো ভাই সলমনকে। এমনটাই দাবি সলমনের স্ত্রীর। তিনি বলেন, ‘আনিসের মৃত্যুর পর থেকেই সলমনকে হুমকি দেওয়া শুরু হয়েছিল। আনিসকে মেরে ছাদ থেকে ফেলে দেওয়া হয়েছে। এরপর যাঁকে মারা হবে তাঁকে আর খুঁজে পাওয়া যাবে না।’ রাস্তাঘাটে দেখা হলেই হুমকি দেওয়া হত বলে অভিযোগ। পুলিশের কাছে অভিযোগ জানালেও কোনও সহযোগিতা মেলেনি বলে জানান সলমনের স্ত্রী। তাঁর বক্তব্য, আনিসের মৃত্যুর পর তাঁর স্বামী প্রতিবাদ করেছিলেন। সেই কারণেই সলমনকে খুন করার চেষ্টা করা হয়েছে।

17