স্পষ্ট করলেন শতাব্দী, অনুব্রতর পাশে বার্তা বোলপুরের সাংসদের

ওয়েবডেস্কঃ অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারির পরই কেন্দ্রীয় এজেন্সি এবং কেন্দ্রের BJP সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিল রাজ্য তৃণমূল নেতৃত্ব। কেন্দ্রীয় এজেন্সিকে ব্যবহার করা হচ্ছে অভিযোগ তুলে পথেও নেমেছিল তৃণমূল। এবার সরাসরি অনুব্রতর পাশে থাকার আবেদন জানালেন বোলপুরের তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। শনিবার অনুব্রতর গড় বোলপুরে সভা করে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের তাঁর পাশে থাকারই আবেদন জানালেন তৃণমূল সাংসদ।

বোলপুরের সাংসদ শতাব্দী রায় এদিন বলেন “অনুব্রত মণ্ডল যদি হাতি হয় তাহলে বিরোধীরা টিকটিকি। হাতি আবার কাদা ধুয়ে সাধারণ মানুষের সামনে আসবেন। তখন কী টিকটিকিরা দাঁড়িয়ে থাকতে পারবেন?”

পাশাপাশি, অনুব্রত মণ্ডলের জন্যই সকলের উন্নতি হয়েছে বলেও জানান বোলপুরের সাংসদ। তাই এখন সকলকে অনুব্রত মণ্ডলের পাশে থাকার আবেদন জানিয়ে তিনি বলেন, “অনুব্রত মণ্ডলের জন্যই আপনাদের সকলের উন্নতি হয়েছে। অনুব্রত মণ্ডল সবসময় আপনাদের পাশে থেকেছে। ভালো সময়ে আপনাদের পাশে থেকেছে। তাঁর এখন খারাপ সময় চলছে। তাই এখন তাঁর পাশে আপনাদের থাকতে হবে।”

এদিন সাংসদ শতাব্দী রায় অনুব্রত মণ্ডলের পাশে থাকার আহ্বান জানালেও পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সমর্থন করেননি। বরং নাম না করে পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দলের সবাই চোর নয়। পার্থ চট্টোপাধ্যায় কী করেছে না করেছে তাতে কিছু এসে-যায় না। একটা পরিবারের একজন চুরি করলে পরিবারের সকলেই চোর হয়ে যায় না।

শনিবারের খয়রাশোলের জনসভায় শতাব্দী রায় ছাড়াও ছিলেন অসিত মাল, মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা, জেলা সভাধিপতি তথা বিধায়ক বিকাশ রায়চৌধুরী, অভিজিৎ সিনহা, মুখপাত্র মলয় মুখোপাধ্যায়-সহ আরও অনেকে। মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা বলেন, “অনুব্রত মণ্ডল সাময়িক অসুবিধায় পড়েছেন। তবে আমাদের প্রতিটি অঞ্চলে এখনও অনুব্রত আছেন। সামনের পঞ্চায়েত নির্বাচনে তার প্রমাণ পাওয়া যাবে। খড়কুটোর মতো
উড়ে যাবে বিজেপি।”

বিজেপির বিরুদ্ধে একহাত নিয়ে শতাব্দী রায় আরও বলেন, “রাজনৈতিক লড়াইয়ে না পেরে বিজেপি কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে তৃণমূলকে হেনস্তা করতে চাইছে। কারণ ওদের মনে ভয় ঢুকেছে, গতবারের ১৮টা সাংসদ এবার আটটাতে নেমে আসবে না তো? তাই এক একদিন এক একজনের নামে মিথ্যা রটনা করছে।” তাঁর দাবি, “আগামী লোকসভা নির্বাচন ২০২৪ সালে। আগামী দু’বছর খেলা চলবে। আপনারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে দল করতে এসেছেন। তার ওপরেই ভরসা রাখুন।”

30