মঙ্গলকোট মামলার রায়দান ৯ সেপ্টেম্বর, উপস্থিত থাকবেন অনুব্রত-সহ বাকি অভিযুক্তরা

ওয়েবডেস্কঃ

২০১০ সালের ৫ মার্চ। মঙ্গলকোটের লাখুরিয়ার মল্লিকপুর গ্রামে ঘটে এক ব্যাপক বিস্ফোরণ। তাতে কেবুলাল শেখ নামে এক ব্যক্তি গুরুতর জখম হন। এই ঘটনায় চার্জশিট দেওয়া হয় মঙ্গলকোট থানায়। তাতেই অনুব্রত মণ্ডল, কেতুগ্রামের বিধায়ক শেখ শাহনাওয়াজ, কাজল শেখ-সহ ১৫ জনের নাম ছিল। এই মামলাতেই বৃহস্পতিবার এমপি-এমএলএ আদালতে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয় অনুব্রতকে।

মঙ্গলকোটে অশান্তি মামলায় বিধাননগরের বিশেষ আদালতে নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। কেতুগ্রামের ৩ বারের তৃণমূল বিধায়ক শেখ শাহনওয়াজ এবং নানুরের তৃণমূল নেতা কাজল শেখও অশান্তির সঙ্গে তাদের যোগসূত্র অস্বীকার করেন।

সেই মঙ্গলকোট অশান্তি ও খুনের চেষ্টার মামলার রায়দান আগামী ৯ সেপ্টেম্বর। এমপি এমএলএ কোর্টে রায়দানের দিন উপস্থিত থাকবেন অনুব্রত মণ্ডল। গতকাল শেষ হয়েছে এই মামলার সওয়াল জবাব। তবে রায়দানের দিন শুধু অনুব্রতই নয় বাকি অভিযুক্তরাই হাজির থাকবেন। খুনের চেষ্টা অশান্তি মারধর সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়েছিল। চার্জশিটে মোট ১৫ জনের নাম রয়েছে যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য নাম অনুব্রত মণ্ডল। এর মধ্যে একজনের ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে।

এই মর্মে আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারক রাজেশ চক্রবর্তীর কাছে চিঠিও পাঠিয়েছেন জেল সুপার। আগামী ৭ সেপ্টেম্বর ফের অনুব্রতকে আদালতে হাজিরার দিন। ওইদিন সম্ভবত ভারচুয়ালি শুনানিতে অংশ নেবেন অনুব্রত। ওইদিন জামিন পান নাকি জেল হেফাজতের মেয়াদ আরও বাড়বে অনুব্রতর, তা নিয়ে চলছে বিস্তর আলোচনা।

24