বধূ নির্যাতনে এগিয়ে বাংলা! বলছে কেন্দ্রীয় রিপোর্ট, কলকাতায় তুলনামূলক কম

ওয়েবডেস্কঃ

দেশের অন্য রাজ্যের তুলনায় কলকাতায় অপরাধ তুলনামূলক কম বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর ২০২১ সালের বধূ নির্যাতন, অর্থাৎ বিবাহিত মহিলার উপর গার্হস্থ্য হিংসার রিপোর্টে বাংলার পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক বলে ধরা পড়েছে। কারণ দেশের অন্য রাজ্যের তুলনায় বাংলায় মহিলাদের শ্বশুরবাড়িতে স্বামী এবং অন্যদের হাতে মহিলারা সবচেয়ে বেশি নির্যাতনের শিকার বলে উঠে এসেছে পরিসংখ্যানে।

বিবাহিত মহিলার উপর গার্হস্থ্য হিংসা সংক্রান্ত দায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে এই রিপোর্ট তৈরি করেছে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো। তাতে বলা হয়েছে, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৮-এ ধারায় বাংলায় ১৯ হাজার ৯৫২টি বিবাহিত মহিলার উপর গার্হস্থ্য হিংসার মামলা দায়ের হয়েছে। NCRB-র পরিসংখ্যান বলছে, এ রাজ্যে প্রতি এক লাখ মহিলা পিছু ৪১.৫০টি বধূ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। জাতীয় স্তরে প্রতি এক লাখ মহিলায় এই পরিসংখ্যান ২০,৫০। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে এমনটাই তথ্য পাওয়া গিয়েছে।

এই তথ্যে উদ্বিগ্ন রাজ্যে নারী সুরক্ষা কমিশনও। বাংলার মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন লীনা গঙ্গোপাধ্যায় এ বিষয়ে বলেন, “সমাজে আজও বিবাহিত মহিলার উপর গার্হস্থ্য হিংসা যে ঘটে চলেছে, তা অস্বীকার করার উপায় নেই। ভারত তথা বাংলার বাস্তব পরিস্থিতি এটাই। তবে আমার মনে হয়, এর একটি ইতিবাচক দিক রয়েছে। কারণ বোঝা যাচ্ছে, বাংলার মহিলারা এই ধরনের অপরাধের ক্ষেত্রে আজকাল আর অভিযোগ জানাতে ইতস্তত বোধ করেন না। এবং প্রশাসনও তার প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নিচ্ছে। একটা স্বচ্ছতা যে তৈরি হয়েছে, এই রিপোর্টই তার প্রমাণ। তবে এখনও অনেক রাজ্যের মহিলারা অভিযোগ জানাতে ভয় পান।”

বাংলার ঠিক পরেই এই তালিকায় রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। সেখানে গত বছর ১৮ হাজার ৩৭৫টি বিবাহিত মহিলার উপর গার্হস্থ্য হিংসার মামলা দায়ের হয়। তৃতীয় স্থানে রয়েছে রাজস্থান। সেখানে গত বছর ১৬ হাজার ৯৪৯টি গার্হস্থ্য হিংসার মামলা দায়ের হয়। রেকর্ডস ব্যুরোর পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সবমিলিয়ে দেশে বধূ নির্যাতনের গর হার ২০.৫০ শতাংশ। সেখানে বাংলা প্রতি ১ লক্ষ বিবাহিত মহিলা পিছু বাংলার হার ৪১.৫০ শতাংশ।

12