তৃণমূল নেতার গাড়ি চড়েন বীরভূমের বিজেপি নেতা! বিস্ফোরক দাবি ঘিরে রাজনৈতিক চাপানউতোর

ওয়েবডেস্কঃ

আবারও গাড়ি বিতর্কর শীর্ষে বীরভূম । এবার অভিযুক্ত জেলা বিজেপি সভাপতি ধ্রুব সাহা। অভিযোগ, তৃণমূল নেতার কাছ থেকে গাড়ি নিয়ে ঘুরে বেড়ান তিনি। এমনই অভিযোগ করেছেন নলহাটির বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা অনিল সিং। অভিযোগ মহম্মদবাজারের ব্লক তৃণমূল সভাপতি শুভ্রাংশু চৌধুরীর নামে নথিভুক্ত।

তবে ধ্রুব সাহা ও শুভ্রাংশু চৌধুরী দুজনেই জানিয়েছেন, তাঁরা ব্যবসায়িক অংশীদার ছিলেন। সেই সূত্রেই তাঁর নামে কেনা গাড়ি চড়েন ধ্রুববাবু।

অনিল সিংয়ের দাবি, ধ্রুব সাহা WB54V2828 নম্বরের যে গাড়িটি চড়েন সেটি মহম্মদবাজারের তৃণমূলের ব্লক সভাপতি শুভ্রাংশু চৌধুরীর কাছ থেকে ঘুষ হিসাবে নিয়েছেন তিনি। ওই গাড়ি এখনও শুভ্রাংশুবাবুর নামে নথিভুক্ত।

এই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে, নলহাটির বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করে বলেছেন, বিজেপি পার্টিতে অনেক পার্থ চট্টোপাধ্যায়, অনুব্রত মণ্ডলের মতো লোক আছে। তাঁদেরও শাস্তি হওয়া দরকার। যেমন বীরভূম জেলার বিজেপি সভাপতি ধ্রুব সাহা। তৃণমূলের একজন ব্লক সভাপতির থেকে এই গাড়িটা ঘুষ হিসেবে নিয়েছেন। এই গাড়িটি আজও তৃণমূল নেতার নামেই রয়েছে। তিনি বলেছেন, ‘আমি এমন কোনও কাজ করি না যে আমাকে ঘুষ দিতে হবে। গাড়িটা বিক্রি করার পরিকল্পনা করি। ধ্রুব সাহা বলে গাড়ি বিক্রি করবেন না, ওটা আমি নিয়ে নেব।’

বিজেপি নেতা তরুণজ্যোতি তিওয়ারি বলেন, কয়েক মাস আগে পর্যন্ত শুভ্রাংশুবাবু বিজেপি করতেন। ধ্রুব সাহার সঙ্গে তাঁর পারিবারিক যোগাযোগও রয়েছে। এর পিছনে রহস্য খুঁজতে যাওয়া ঠিক নয়।

ওদিকে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক অনুপম হাজরা বলেন, ‘আমার কাছে অভিযোগ এসেছে, বীরভূমে অনেক বিজেপি নেতার সংসার তৃণমূলের টাকায় চলে। তেমনটা হলে আমার থেকে খারাপ কেউ হবে না। আমি তাদের দল থেকে তাড়িয়ে ছাড়ব।’

24