কুলিক রোববার কবিতা: জল সেচ

শ্রাবণী ভট্টাচার্য

গাছে জল দাও নাকি রোজ?

       মাটি নিংরিয়ে আলগা করো কি ভোরে?

       মাটি ছুঁয়ে জল , সার নাই থাকে যদি কোনে

       গাছ কি মেটাবে ফুলের শর্ত ,ভৈরবী রাগ ঘোরে!!

        আমাকে বলোনি কতদিন কত কথা

          খোঁপার বাঁধনে দাওনি ফুলের গুচ্ছ

           কতদিন মেঘ ছুঁয়েছে চোখের পাতা

          বৃষ্টি অনোনি মেঘ কে ভেবেছো, রোজনামচায় তুচ্ছ।

            এখন আমি বারোমাসি ফুল টুকু

            ফুটবেই যত ঝঞ্ঝা আসুক বুকে

             বাগান আমার সুদূর পারের  দেখা

              ঘাস পাতা যতো আগাছা ভরেছে শোকে

             তোমার নদ কি শুকিয়ে ক্রমিক   খাল?

             আমার গর্ভে এখনো স্রোতের ঢেউ

               এখনো ষোলোর দাপুটে হাওয়ার বেগ

              মধ্য দুপুরে হাওয়ার খেলায় ভাসে।

             বৃষ্টির সাথে নেমে এসো একরাতে

               মেঘের কাজল দুচোখের কোল ঘেষে

             মরা গাঙে বান তুলবো ই একসাথে।

                আকাশের কোলে মেঘ বৃষ্টির খেলা যদি শেষে মেশে!

25