৭ হাজার কোটি টাকা লুট করে লন্ডনে গুজরাটের যতীন! অভিযুক্ত বিজেপি

ওয়েবডেস্কঃ যতীনের পারিবারিক সংস্থা হল উইনসাম ডায়মন্ডস। আর সেই কোম্পানির নামেই ২০১৪ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে ভারত থেকে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পাচার করেছেন প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা মূল্যের হীরে এবং হীরের গয়না। এই টাকার গোটাটাই তিনি পেয়েছিলেন ভারতের বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত ও বেসরকারি ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ হিসাবে। নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই যতীন নিজের কারবার শুরু করেন বলে জানা যায়। অভিযোগ বিজেপি সরকারের মন্ত্রীদের সৌজন্যেই এই ঋণ পাওয়া অত্যন্ত সহজ হয়ে যায়। টাকা আত্মসাৎ করে এক সময়ে ভারতের পাট চুকিয়ে সপরিবার সরে পড়তেও কোনও সমস্যা হয়নি।

সাত হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি বিদেশে পাচার করার পরে টাকা দিয়ে ক্যারিবীয় এলাকার সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিসের নাগরিকত্ব নেন যতীন মেহতা।কিন্তু ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ সেন্ট কিটসের নাগরিকত্ব নিলেও তিনি নাকি আসলে লন্ডনে বহাল তবিয়তে রয়েছেন সপরিবারে। জানা গিয়েছে, যতীনের স্ত্রী সোনিয়া, দুই ছেলে বিশাল এবং সুরজ তিনটি আলাদা বাড়িতে থাকেন। সেন্ট জনস উড, মাইদা ভ্যালে এবং হ্যাম্পস্টেড গার্ডেনে তাঁদের বাড়ি রয়েছে।

এই দ্বীপরাষ্ট্রে বাসিন্দার সংখ্যা খুব কম। তবে এদের মধ্যে অধিকাংশই অতি ধনী। বাংলো, দামি গাড়ি, প্রাইভেট সি-বিচ, এমনকী প্রাইভেট জেট প্লেনও আছে তাঁদের। বছরে নামমাত্র কর জমা দিতে হয়। বিনিময়ে দেশটি কোনও নাগরিকের ব্যক্তিগত জীবন অথবা রোজগারের রাস্তা নিয়ে মাথা ঘামায় না। তাই সেখানে বহাল তবিয়তেই যতীন।

36