অর্পিতার নামে টেক্সটাইল সংস্থা, দুটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানি, আর কী জানতে পারল ইডি

ওয়েবডেস্কঃ এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে সরগরম গোটা রাজ্য রাজনীতি। কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশে তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ইতিমধ্যেই ইডি হেফাজতে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর ‘ঘনিষ্ঠ’ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। তাঁর আবাসন থেকে সব মিলিয়ে মোট ৫০ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি।

এবার খোঁজ মিলেছে অর্পিতার নামে একটি টেক্সটাইল সংস্থার। আগেও দুটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানির খোঁজ পেয়েছিলেন তদন্তকারীরা।ওই টেক্সটাইল কোম্পানির শেয়ার ক্যাপিটাল প্রায় ২ লক্ষ টাকার মতো। একই জায়গায় চলা দুটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানির শেয়ার ক্যাপিটাল ১ লক্ষ টাকার মতো। জানা গেছে, ওই রিয়েল এস্টেট ও টেক্সটাইল কোম্পানির ঠিকানা একই, অর্পিতার বেলঘরিয়ার রথতলার ফ্ল্যাট। সাথেই ফ্রিজ করা হয়েছে মোট ৮টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট।

জানা গেছে, বেলঘরিয়ার রথতলায় ক্লাবটাউন হাইটসের যে ৮এ ফ্ল্যাটটি থেকে প্রায় ২৮ কোটি টাকা উদ্ধার হয়েছে সেখানেই এই তিনটি কোম্পানি রমরম করে চলছিল। চমকের শেষ এখানেই নয়। ওই তিনটি কোম্পানির নথিভুক্তিকরণ হয় একই সময়ে ২০১২ সালে। ব্যালান্স শিটও একই দিনে ফাইল করা হয়।

তিনটি নেল পার্লার এবং বাংলা, ওড়িয়া ছবিতে সহ অভিনেত্রী হিসাবে কাজ করা অর্পিতা ফ্ল্যাটে কীভাবে কোটি কোটি টাকা এল, সেটাই এখন সবচেয়ে বড় প্রশ্ন।

33