টাকা রাখতে বাড়িতে মাটির নীচে বাংকার বানান অর্পিতা! বিস্ফোরক মামী

ওয়েবডেস্কঃ

টাকা রাখার জন্য বাড়িতে মাটির নীচে বাংকার! হুগলির জাঙ্গিপাড়ায় মথুরাবাটি গ্রামে মাস তিনেক আগে নতুন সাদা রঙের একতলা বাড়ি বানান অর্পিতা মুখার্জি।যার নাম সীতা ভবন। জাঙ্গিপাড়ার গ্রামে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে, অর্পিতার মামার বাড়িতে হামেশাই আসতেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এবং অর্পিতার মামার হতদরিদ্র অবস্থা তারপর থেকেই বদলে যায়।

সেই বাড়িতেই নাকি মাটির নীচে বাংকার তৈরি করা হয়েছে। এমনই দাবি করলেন অর্পিতার মামী স্বপ্না চক্রবর্তী। তাঁর দাবি, “রাজমিস্ত্রিদের মুখেই শুনেছিলেন বাংকার বানানোর কথা। সেই সময় এত গুরুত্ব দেননি। কিন্তু পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায় গ্রেফতার হওয়ার পর এখন মনে হচ্ছে ওখানে টাকা লুকানো থাকতে পারে। তাই পুলিসের একবার তল্লাশি করা উচিত ওই বাড়িতে।”

শুধু বাড়ি তৈরি করে দেওয়া-ই নয়, ‘অর্পিতা-পার্থ’ যোগে তাঁর আত্মীয়দের চাকরি হয় বলেও অভিযোগে সরব গ্রামবাসীরা। অর্পিতার মুখোপাধ্য়ায়ের ফ্ল্যাট থেকে টাকার পাহাড় উদ্ধারের পরই তাঁকে গ্রেফতার করেছে ইডি। আর তারপরই সামনে আসছে এমন অনেক টুকরো টুকরো ঘটনার কথা। এমনকি এই বাড়ি তৈরির জন্য জোর করে তাঁদের জমি দখল করে নেওয়া হয় বলেও অভিযোগ গ্রামবাসীদের। গ্রামবাসীদের সঙ্গে অত্যন্ত খারাপ আচরণ করতেন অর্পিতা। ক্ষমতার ভয়ও দেখাতেন। তাই তাঁদের কেউ ঘাঁটাতে সাহস পেত না।

উল্লেখ্য, অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের হরিদেবপুরের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হল কালো ডায়েরি। সেই কালো ডায়েরির উপর উচ্চ শিক্ষা দফতরের নাম লেখা আছে বলে সূত্রের খবর। ইডির তল্লাশিতে উদ্ধার হওয়া এই ডায়েরিতে একাধিক ভুয়ো সংস্থার নাম রয়েছে বলেই সূত্রের দাবি। সেই ডায়েরি বাজেয়াপ্ত করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।সাথেই মিলেছে মিনিস্টার ইন চার্জ হায়ার এডুকেশন, স্কুল এডুকেশন লেখা টাকা ভর্তি খাম। সেই খামে ছিল ৫ লক্ষ টাকা।

16