আরও বাড়ল চিন্তা, পতনের নতুন মাইলফলক টাকার মূল্যের! ৮০ টাকা ছুঁল ডলারের দাম

ওয়েবডেস্কঃ

ক’দিন ধরেই দেশের মুদ্রার দরে ক্রমাগত পতনের জেরে বিরোধীদের আক্রমণের মুখে পড়ছে মোদী সরকার। এ দিন লোকসভায় বাদল অধিবেশনের প্রথম দিনে টাকার দর নিয়ে মুখ খুললেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।ভারতীয় অর্থনীতির ইতিহাসে এই প্রথম এক ডলারের দাম পৌঁছেছে ৮০ টাকায়।

রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার রিপোর্ট বলছে, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর এক ডলারের দাম ছিল ৬৩ টাকা ৩৩ পয়সা। ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর এই দাম বেড়ে দাঁড়ায় ৬৯ টাকা ৭৯ পয়সা। ২০১৯ সালের শেষদিনে দেখা যায় ডলারের নিরিখে ভারতীয় মুদ্রার দাম ৭০-র গণ্ডি ছাড়ায়। করোনা কালের পর এই বিনিময় মূল্য সত্তর টাকার আশপাশে ছিল। কিন্তু কয়েক মাস ধরেই মন্দা ভারতীয় মুদ্রা বাজারে। ক্রমশ পড়ছে ভারতীয় মুদ্রার দাম।

নির্মলার দাবি, যুদ্ধ, অশোধিত তেলের চড়া দর এবং বিভিন্ন দেশে সুদের হার বৃদ্ধিই টাকা পড়ার পিছনে দায়ী। বিশেষত আমেরিকায় সুদ বৃদ্ধির কারণে ভারতের শেয়ার বাজার থেকে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি ক্রমাগত পুঁজি সরানোর বিরূপ প্রভাব দেখা গিয়েছে তার দরে। এ দিন অবশ্য ওই সব সংস্থা শেয়ার কিনেছে ১৫৬.০৮ কোটি টাকার। সেনসেক্স বেড়েছে ৭৬০.৩৭ পয়েন্ট। তিনি আরো বলেন, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর থেকে এখন পর্যন্ত ভারতীয় মুদ্রার দর পড়েছে ২৫%। এবং এই পতনের অন্যতম কারণ বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলির পুঁজি তুলে নেওয়া। সোমবার বাদল অধিবেশনের শুরুতেই লোকসভায় লিখিত প্রশ্নের জবাবে এই তথ্য দিল কেন্দ্র সরকার।

27