রথের মেলায় ভেঙে পড়ল ঘূর্ণায়মান নাগরদোলা, গুরুতর আহত ৪

ওয়েবডেস্কঃ রথের মেলায় বিপত্তি! ভেঙে পড়ল ঘূর্ণায়মান নাগরদোলা। শুক্রবার সন্ধ্যায় মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারির রসুলপুরে। ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ৪ যুবক-যুবতী। এঁরা সকলে নাগরদোলার আরোহী ছিলেন। বর্তমানে তাঁরা মেমারি গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মেমারির রসুলপুরে রথযাত্রা উপলক্ষ্যে শুক্রবার মেলা বসেছিল। বিভিন্ন দোকান, বিভিন্ন রাইডের পাশাপাশি বৈদ্যুতিক নাগরদোলাও ছিল মেলায়। এদিন সন্ধ্যা থেকেই সেই মেলায় ছোট থেকে বড় অগণিত মানুষের ভিড় দেখা যায়। বৈদ্যুতিক নাগরদোলাটিতেও ছোট থেকে বড় বিভিন্ন বয়সি সকলে চড়েন। বেশ কয়েকটি রাউন্ডের পর হঠাৎ করেই চলন্ত বৈদ্যুতিক নাগরদোলাটি ভেঙে পড়ে। যার ফলে সিট থেকে একেবারে ছিটকে পড়েন ৪ যুবক-যুবতী।

দুর্ঘটনায় আহত শুভঙ্কর নন্দী বলেন, “নাগরদোলা চালু হতেই সেটির বেল্ট আচমকা ছিঁড়ে যায়। বেশ কয়েক জন নাগরদোলা থেকে ছিটকে মাটিতে পড়ে যান।”

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী লক্ষ্মণ রায় বলেন, “নাগরদোলা ভেঙে পড়ার পর বেশ কয়েক জন নাগরদোলার উপরে আটকে পড়েন। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁদের উদ্ধার করেন।”

হাসপাতালের চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় যারা জখম হয়েছেন তাঁদের কারও আঘাত গুরুতর নয়। এই ঘটনায় নাগরদোলার মালিক ও অপারেটর দুজনকেই আটক করেছে পুলিশ।

পাশাপাশি, কালনার জগন্নাথ তলায় রথের দড়ি টানাকে ঘিরে ভিড়ের চাপে কয়েকজন অসুস্থ, অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা। করোনার কারণে দুবছর রথের উৎসব বন্ধ থাকায় বহু মানুষ রথের দড়ি টানার জন্য ভিড় করেছিলেন। বেশ কয়েকজন মহিলা হুড়োহুড়িতে মাটিতে পড়ে যান। স্বাভাবিকভাবেই রথযাত্রার দিনে এহেন ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা বর্ধমান এলাকায়।

48