শিশু শিক্ষা কেন্দ্র পরিনত হয়েছে গোয়ালঘরে

ওয়েবডেস্কঃ

দীর্ঘ লকডাউনের পর কিছুদিনের জন্য খুলেছিল স্কুল। তারপরেই আবার গরমের ছুটির কারনে বন্ধ হয়ে যায় রাজ্যের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার ফলে লক্ষনীয় ফুটানি গঞ্জ শিশু শিক্ষা কেন্দ্র পরিণত হয়েছে গোয়াল ঘরে। রয়েছে শ্রেণিকক্ষ, আছে তিনজন শিক্ষক-শিক্ষিকার, অর্ধ শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী।

স্কুল খোলার পরে যেখানে ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতি মাত্র ৪ থেকে ৫ জন।আমাদের সাংবাদিক, শিশু শিক্ষা কেন্দ্র পৌঁছলে দেখেন স্কুলের প্রতিটা শ্রেণিকক্ষ ভর্তি হয়ে রয়েছে ফসলের অবশিষ্টাংশ, খড়ি দিয়ে। স্থানীয় গ্রামবাসী জানান, স্কুল বন্ধ আছে তাই অপরিষ্কার আছে। শৌচালয়ের অবস্থা খুবই খারাপ। পানিয় জলের একমাত্র সম্বল কলটি বহু সময় ধরে নষ্ট। অন্য দিকে দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার ফলে গ্রামবাসীরা স্কুলের মধ্যে মজুদ করে রেখেছে খড়ি, ফসলের অবশিষ্ট অংশ গুলো।

স্কুল চালু হলেই সেগুলো তারা সরিয়ে দেবে। সাংবাদিকের প্রশ্নে জানান, স্থানীয় এক মানসিক ভারসাম্যহীন বয়স্ক লোক আছে।তিনিই স্কুল নোংরা করেন। অপর দিকে ঐ গ্রামের একজন বয়স্ক ব্যক্তি স্কুলের এই অবস্থার জন্য সরাসরি দায়ি করেন শিশু শিক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্ব প্রাপ্ত শিক্ষিকাকে। গরমের ছুটি শেষ হয়ে শিক্ষা কেন্দ্র খুলে গেছে। এখন দেখার বিষয় হল, এই চরম অব্যবস্থার মধ্যে কি ভাবে শিশুদের জন্য যথাযোগ্য সুস্থ পরিবেশ ফিরিয়ে দিতে পারে শিশু শিক্ষা কেন্দ্র, স্থানীয় প্রশাসন ও গ্রামবাসীরা।

28