জলের তলায় বাড়ি, হাইওয়েতে আশ্রয় দুর্গতদের, বন্যা পরিস্থিতিতে অসমে মৃত বেড়ে ১১৮

ওয়েবডেস্কঃ

বৃষ্টি এখন নেই,আগামী কয়েক দিন আসামে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।কিন্তু তাহলেও উন্নতি হয়নি বন্যা পরিস্থিতির। উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যে নতুন করে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১৮।এর মধ্যে দু’জন করে বরপেটা, ধুবড়ি, করিমগঞ্জ ও উদলগিরিতে এবং কাছাড় ও মরিগাঁওয়ে একজন করে মৃত্যুর খবর সামনে এসেছে।

শিলচর শহর কার্যত জলের তলায়। সেখানে জলস্তর ক্রমশ বাড়ছে বলে জানা গিয়েছে। এর জেরে শিলচরের বিভিন্ন এলাকা বিদ্যুৎহীন। পানীয় জলের সমস্যাও দেখা গিয়েছে। শ্মশান ডুবে যাওয়ায় প্যাকেটে মুড়ে মৃতদেহ বন্যার জলেই ভাসিয়ে দিয়েছেন স্থানীয়রা।

অসমের ২৮টি জেলার ৩৩ লক্ষেরও বেশি মানুষ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন।এক হাজার ১২৬টি ত্রাণ শিবিরে ২.৬৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন।নগাঁও জেলার বহু মানুষ হাইওয়েতে আশ্রয় নিয়েছেন। বাড়ি জলে ডুবে যাওয়ায় হাইওয়েতে তাঁবু খাটিয়ে দিনযাপন করছেন দুর্গতরা। রাহা বিধানসভা কেন্দ্রের অধীনে ১৫৫টি গ্রামের প্রায় ১.৪২ লক্ষ মানুষ বিপর্যস্ত ।

ইতিমধ্যেই অসমের পরিস্থিতি নিয়ে সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

33