50 বছর ধরে চলাচলের মাধ্যম বাঁশের সাঁকো, ঘুরে তাকাচ্ছে না প্রশাসন

দীর্ঘ 40 বছর ধরে চলছে বাঁশের সাঁকো পারাপার। এই বাঁশের সাঁকোর ওপর ভরসা করে চলেছে চোপড়া ব্লকের চুটিয়াখোর গ্রাম পঞ্চায়েতের পূর্ব কালিকাপুর মিলিকটুলি গাঁয়ের মানুষ। এই বাঁশের সাঁকো পারাপার করে প্রতিদিন পাঁচ শতাধিক মানুষ হাঁটাচলা করে।

পূর্ব কালিকাপুর মিলিকটুলি , দক্ষিণ কালিকাপুর সহ কয়েকটি গ্রামের মানুষের
রাতের বেলা কোনও মুমূর্ষ রোগী নিয়ে যেতে হলে তিন কিলোমিটার দূরের রাস্তা দিয়ে ঘুরে যেতে হয়। চুটিয়াখোর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন এলাকায় অনেক উন্নয়ন হলেও বঞ্চিত হয়ে রয়েছে এই কালিকাপুর মিলিকটুলি গাঁয়ের বাসিন্দারা।

গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে পঞ্চায়েত সমিতিকে বারবার জানানো সত্ত্বেও কাজ হয় নি বলে অভিযোগ বাসিন্দাদের।প্রত্যেক বছর স্থানীয় বাসিন্দাদের উদ্যোগে বাঁশের সাঁকো বানিয়েই যাতায়াত সমস্যার সমাধান হয়ে আসছে। যদিও খুব শীঘ্রই এই সমস্যার স্থায়ী সমাধান হবে বলে জানিয়েছেন চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজহারউদ্দিন।

25