চাকরির জন্য টাকা দেওয়ার অভিযোগ করতেই সাংবাদিকদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়লেন পুলিশকর্মী

টাকা নিয়ে চাকরি দেননি এই অভিযোগে গত পরশু শারীরিক নিগ্রহের শিকার হন দুই ব্যক্তি। আজ চাকরির জন্য টাকা দেওয়ার খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে পিটুনির শিকার খোদ সাংবাদিকেরা।

প্রতিনিয়ত সাধারণ মানুষের পাশে থাকে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ। আর আজ আহত হলো সেই স্তম্ভটি। একটি খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে পিটুনির শিকার হলেন সাংবাদিকেরা। ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার বাজিতপুর এলাকার কাচিমুহায়।

টাকা দিয়ে চাকরি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ওই এলাকারই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ঋষিকেশ রায়ের পরিবারের বিরুদ্ধে। অভিযোগ তার ছেলে দেবব্রত রায়ের প্রাথমিক স্কুলে চাকরির জন্য তাঁর সহকর্মীর ছেলে ভাদ্রু ওরফে হরিশ বর্মনকে টাকা দেন তিনি। বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়ার জন্য সেখানে গিয়েছিল স্থানীয় সাংবাদিকরা।

কিন্তু সেখানে গিয়েই ঘটলো বিপত্তি।
কথা বলতে বলতেই হঠাৎই পুলিশ কর্মী দেবব্রত রায় আক্রমণ করেন সাংবাদিকদের ওপর। ছুড়ে ফেলে দেন বুম ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে মাইকের তার। আক্রমণে মাথা ফেটে যায় সাংবাদিক সুদীপ চক্রবর্তীর। আহত হন সাংবাদিক রূপক ঘোষ সহ অন্যান্যরা।
এরপরে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। ওই ব্যক্তিকে আটক করে নিয়ে যায়।

সম্প্রতি ১১নং বীরঘই গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের কাছে রণজিৎ বর্মন নামে এক ব্যক্তি অভিযোগ জানান যে তিলক দাস ও হরিশ বর্মন নামের দুই ব্যক্তি চাকরি দেবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার কাছ থেকে চার লক্ষ আশি হাজার টাকা নিয়ে চাকরি দেয় নি । ওই দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতেই আজ কচিমূহা গ্রামে যান সাংবাদিকরা।

80