জামিন পেলেন সিদ্ধান্ত কাপুর

ব্যাঙ্গালোরের পার্ক হোটেলে রবিবার পুলিশ হানা দিয়ে সন্দেহজনক ৩৫ জনকে আটক করে। তারপর মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। তারমধ্যে ৫ জনের রক্তে ড্রাগসের হদিস মিলেছিল বলে দাবি করে পুলিশ। এরপরে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয় অভিযুক্তদের।

পুলিশ সূত্রের খবর, ওই পার্টিতে ব্যাঙ্গালোরের অনেকে থাকলেও, আটক ব্যক্তিদের মধ্যে কেউই কর্ণাটকের বাসিন্দা নন। একজন পাঞ্জাবের, বাকিরাও ভারতের বিভিন্ন প্রান্তের। আর মূল আলোচিত অভিযুক্ত সিদ্ধান্ত মুম্বাইয়ের বাসিন্দা। সকলে পার্টিতে অংশগ্রহণ করতেই ব্যাঙ্গালোরে এসেছিলেন। পুলিশি তদন্তের পর আরও অজানা তথ্য জানা গিয়েছে। সেদিন পার্টি থেকে ৭টি এম.ডি.এম.এ ট্যাবলেট ও সাথে কয়েক প্যাকেট গাঁজাও পাওয়া গেছে। সেগুলি পুলিশের চোখের আড়াল করার চেষ্টা করা হলেও শেষ পর্যন্ত তা সম্ভব হয়নি।

সূত্রের খবর, রবিবার রাতে এক পার্টিতে যোগ দিতে মুম্বাই থেকে ব্যাঙ্গালোরে উড়ে আসেন সিদ্ধান্ত। পার্টিতে ডিজে’র ভূমিকায় ছিলেন সিদ্ধান্ত। পার্টিতে ড্রাগ সেবনের অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়ার পর বলিউড সেলিব্রেটি তথা অভিযুক্তের বাবা শক্তি কাপুর বলেন, এটি একটি অসম্ভব ঘটনা! তাঁর ছেলে সিদ্ধান্ত এই কাজ করতেই পারেননা। সম্প্রতি মাদককাণ্ডে আরিয়ান খানের মুক্তির পর আরও এক তারকার পুত্রের নাম উঠে আসায় নতুন বিতর্ক দানা বেঁধেছে বলিউডের অন্দরে।

আপাতত মামলাটি নারকোটিক ড্রাগস এন্ড সাইকোট্রপিক সাবস্টেন্সেস (NDPS)-এর আওতাধীন। সিদ্ধান্ত সহ বাকিরা আপাতত জামিনে মুক্তি পেলেও পুরোপুরি নিশিন্ত হচ্ছেন না অভিযুক্তরা। NDPS তলব করলেই হাজিরা দিতে হবে তাদেরকে।

40