বিধায়কের সাথে কাজিয়ায় বন্ধ পঞ্চায়েত দফতর খোলাতে এবার প্রশাসনের দ্বারস্থ সিপিআইএম

ওয়েবডেস্কঃ

প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতি অফিস একদম তালা বন্ধ। বন্ধ বিভিন্ন সরকারি পরিষেবা। আর তাই এই অচলাবস্থা কাটাতে এবার রায়গঞ্জ ব্লকের বিডিও’র দ্বারস্থ সিপিআই(এম)। জানা যাচ্ছে প্রায় এক কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে রায়গঞ্জের বিধায়ক ও পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য দের মধ্যে বিরোধ শুরু হওয়ায় এই অচলাবস্থা। গত 27 মে থেকে এই পরিস্থিতি। এর ফলে পঞ্চায়েত সমিতির অফিসের কাজকর্ম বন্ধ। হয়রানি হচ্ছে সাধারণ মানুষের।


প্রসঙ্গত প্রায় এক কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে রায়গঞ্জের বর্তমান বিধায়কের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সব সদস্যরা। সমিতির সদস্যরা পঞ্চায়েত সমিতির কাজকর্ম বয়কটেরও সিদ্ধান্ত নেয় বিগত ২৭মে থেকে।   চরম বিক্ষোভের মধ্য দিয়ে, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নিজে হাতে পঞ্চায়েত দপ্তরে তালা ঝুলিয়ে দেন ১৮ দিন আগে। আজও পঞ্চায়েত সদস্যদের সেই বিক্ষোভ অব্যাহত। 

কিন্তু পুরো বিষয়ে তাদের প্রতিবাদ জানিয়ে আজ রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতি দফতরের সামনে বিক্ষোভ ও গনডেপুটেশন দেয় রায়গঞ্জ সিপিআইএম নেতৃত্ব ও কর্মীরা। তাঁরা বলেন,
“জনগনের দাবিকে উপেক্ষা করার অধিকার নেই প্রশাসনের। অবিলম্বে ২৮ দিন বন্ধ পঞ্চায়েতের গেটের তালা ভাঙ্গতে হবে। অন্যথায় পঞ্চায়েতে যারা তালা মেরেছে সেই তৃণমূল নেতাদের গ্রেপ্তার করতে হবে। কিছুতেই এই ভাবে দীর্ঘদিন পঞ্চায়েত অফিস বন্ধ থাকবে তা চলতে পারেনা। পঞ্চায়েতের ম্যাজিষ্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিডিও, তাই এই দায়িত্ব বিডিওকেই নিতে হবে।”

তবে ডেপুটেশনের শেষে সিপিএম নেতৃত্বের তরফে জানাগেছে যে, যতদ্রুত সম্ভব পঞ্চায়েতের অফিস খোলার ব্যবস্থা করবে বিডিও এমনই আশ্বাস দিয়েছেন পার্টি নেতৃত্বকে। এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন সিপিআইএম নেতৃত্ব মতিয়ুর রহমান, মোহিত বর্মন , তীর্থ দাস, প্রদ্যুৎ নারায়ণ ঘোষ,নীলকমল সাহা প্রমুখ।

53