নিখিল বঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে ডি পি এস সির চেয়ারম্যানকে ডেপুটেশন

ওয়েবডেস্কঃ

এই স্কুল থেকে সেই স্কুল রাতের অন্ধকারে ট্রান্সফার হচ্ছে। শাসক দলের নেতার সঙ্গে প্রতিদিনের লেনদেন হচ্ছে। শিক্ষক শিক্ষিকাদের সমস্যা নিয়ে মাথা ব্যাথা নেই অথচ শাসক দলের শিক্ষক সংগঠনের নেতাদের অনৈতিক কাজে ব্যস্ত থাকছে ডি আই। এমনই অভিযোগ তুলেছে নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি।
বুধবার সংগঠনের উত্তর দিনাজপুর জেলার উদ্দোগে জেলা জমায়েত ছিলো কর্নজোড়া মেইন গেটে।


এ বি পি টি এ উত্তর দিনাজপুর জেলা কমিটির উদোগে ডি আই অফিস অভিযানে সরগরম কর্নজোড়া। শিক্ষক শিক্ষিকাদের স্বার্থে রায়গঞ্জ কর্নজোড়া থেকে শিক্ষকদের বড় মিছিল শুরু হয়। জেলা প্রশাসনিক দপ্তর ঘুরে প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদ চত্বরে এসে মিছিল শেষ হয়। শুরু হয় শিক্ষক শিক্ষিকাদের  বিক্ষোভ ।

সমস্ত স্কুলের স্কুলছুট(ড্রপ আউট) শিশুদের দ্রুত স্কুলে ফেরাতে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। উৎসশ্রী প্রকল্পে সমস্ত দূর্নীতি রোধে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে হবে।
তিন মাস বাদে যে শিক্ষক শিক্ষিকা অবসর নেবেন সেই শিক্ষকের পি এফ একাউন্ট আফ টু ডেট করা হচ্ছে না কেন?

এছাড়াও সমস্ত স্কুলে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের দাবী, মিড ডে মিলের টাকা অগ্রিম স্কুলে দেওয়ার দাবী সহ ১২ দফা দাবীর ভিত্তিতে জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের কাছে ডেপুটেশন দেওয়া হয়।
জেলা সংসদ অফিসে
জেলা সংসদ সভাপতি জাবিদ আলম চেয়ারম্যান এবং ডিআই প্রাথমিক দীপক কুমার ভক্ত একসাথে দুজনকেই ডেপুটেশন দেওয়া হল।

অফিসে কর্মী অপ্রতুলতার অভিযোগ মানতে নারাজ প্রথমিক শিক্ষকরা। 
শিক্ষক দের পেশাগত সমস্যা সমাধানে নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি উত্তর দিনাজপুর জেলা কমিটির পক্ষ থেকে দাবীপত্র পেশ করা হয়। সমস্যাগুলির দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন। ডেপুটেশনে কৃষ্ণেন্দু রায় চৌধুরী, অয়ন দত্ত, ধ্রুব পাল, গৌড় মন্ডল,গোলাম ইয়াজদানী সহ শিক্ষক নেতৃত্বরা ।

111