পার্টি ফেরত নাবালিকাকে গাড়িতে তুলে গণধর্ষণ! হায়দরাবাদ কাণ্ডে নতুন তথ্য

ওয়েবডেস্কঃ ঘটনার সূত্রপাত গত শনিবার। ওই নাবালিকা অভিজাত জুবিলি হিলস এলাকায় একটি পাবে বন্ধুর পার্টিতে গিয়েছিলেন। সেখানে আলাপ হয় কয়েকজন যুবকদের সঙ্গে। বাড়িতে পৌঁছে দেবে বলে নাবালিকাকে একটি গাড়িতে তোলে ওই যুবকরা। কিন্তু, আসল উদ্দেশ্য ছিল অন্য। কিছুটা গিয়ে গাড়ি থামিয়ে দেয় তারা। এরপরই নাবালিকার উপর নারকীয় অত্যাচার চালানো হয় বলে অভিযোগ।

শনিবার ঘটনাটি ঘটলেও বুধবার অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয় মামলা। নাবালিকাকে গাড়িতে তুলে তিন-চারজন যুবক নারকীয় এই কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ। অভিযুক্তদের মধ্যে হায়দরবাদের এক বিধায়ক পুত্র জড়িত বলেও জানা গিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, প্রথমে এই ঘটনা বাড়িতে জানায়নি ওই তরুণী। কিন্তু, ঘাড়ে আঘাতের চিহ্ন দেথে সন্দেহ হয় পরিবারের। এরপর তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ মেলে। তিন-চারজন যুবক মিলে তাঁকে শারীরিক নির্যাতন করেছে বলে পুলিশকে জানায় নির্যাতিতা। তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

ঘটনার অভিযোগ পেয়ে সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছে স্থানীয় পুলিশ। বয়ান অনুযায়ী ঘটনার দিন বিকেল পাঁচটা থেকে ছয়টার মধ্যে ওই পাব থেকে বেরিয়ে যায় ওই কিশোরী। দেখা গেছে অভিযুক্তদের মধ্যে তিনজন রয়েছে স্কুল পড়ুয়া। পার্কিং জোনে পার্ক করা একটি ইনোভা গাড়ি তে ওই নাবালিকাকে তুলে ধর্ষণ করা হয় বলে জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে অভিযুক্তরা অধিকাংশ একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র । এবং, তারা সকলেই অভিজাত পরিবারের সন্তান হওয়ায় তাদের প্রত্যেকের কাছেই রয়েছে দামি গাড়ি এবং মোবাইল ফোন। অভিযুক্তদের মধ্যে একজন AIMIM বিধায়ক পুত্র। অন্যদিকে অপরাধ মন্ত্রীর নাতিও এই ধর্ষণকাণ্ডে যুক্ত বলে জানা গেছে।

ইতিমধ্যে ওই পাবের মালিককেও জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

65