নার্সের পা ধরেও লাভ হল না পরিবারের, হাসপাতালে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু প্রসূতির

ওয়েবডেস্কঃ

প্রসূতির মৃত‍্যু ঘিরে চাঞ্চল‍্য ছড়ালো সরকারী হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাটি ঘটে মালদহের চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে।

জানা গেছে, বুধবার বিকেলে স্বাভাবিকভাবে প্রসব করে ওই প্রসূতি কিন্তু, প্রসবের পরও রোগীর রক্তক্ষরণ থামেনি। এরপর হাসপাতালে নার্সের হাতে পায়ে ধরেও একবার ঘুরে তাকাননি ওই প্রসূতির দিকে। এবং সেই সময় চিকিৎসক বিশ্বজিৎ রায়েরও দেখা মেলেনি বলেই অভিযোগ। মূলত চিকিৎসকের গাফিলতিতে প্রসূতির মৃত‍্যু হয়েছে।

মৃত ওই প্রসূতির নাম উমা ঘোষ, বয়স 22 বছর। বাড়ি চাঁচল-২ নং ব্লকের নদাপাড়া গ্রামে। ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার সকালে প্রসূতি মৃত‍্যুতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন পরিবারের লোকজনেরা।পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে ছুটে আসে চাঁচল থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী।

যদিও চিকিৎসক বিশ্বজিৎ রায়কে ফোনে ধরা হলে কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি।

নার্স ও চিকিৎসকের গাফিলতিতে মৃত‍্যূ হয়েছে প্রসূতি উমা ঘোষের বলে জোড়ালো দাবি করেছে তার স্বামী সহ গোটা পরিবার।সদ‍্যোজাত শিশুটিও আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। ঘটনা নিয়ে স্বাস্থ্য ভবন ও স্থানীয় চাঁচল থানাতেও অভিযোগ করবেন বলে জানিয়েছেন পরিবারের লোকজনেরা।

এবিষয়ে চাঁচল সুপার
স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার কুমারেষ ঘোষ জানান,কোনোরকম রক্তক্ষরণ হয়নি।শ্বাসকষ্ট জনিত কারনে মারা গিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে অনুমান করা যাচ্ছে।

31