দাম্পত্য কলহের জের! স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী’ স্বামী।

ওয়েবডেস্কঃ একই বাড়ির আলাদা আলাদা দুটি ঘর থেকে উদ্ধার স্বামী এবং স্ত্রীর দুটি মৃতদেহ। এই দম্পতির রহস্যমৃত্যুতে চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের ডোমকল পুরাতন ভিডিও মোড় এলাকায়।

জানা গেছে মৃত ওই দম্পতির এটি তাদের দ্বিতীয় দাম্পত্য জীবন। ওই দম্পতির নাম সুনীল কুন্ডু ও আন্না হালদার।

সুনীল কুণ্ডু পেশায় ডোমকল ব্লকের খাদ্য দপ্তরের অস্থায়ী কর্মী। আন্না ছিলেন অঙ্গনওয়াড়ির প্রধান সহায়িকা। বছর দেড়েক আগে আন্না হালদারের প্রথম স্বামী মারা যায়। তার ছ’মাস পরে সুনীলের সঙ্গে রেজিস্ট্রি বিয়ে হয় তাঁর।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় প্রতিদিনই দাম্পত্য কলহ লেগেই থাকত সেই বাড়িতে। সুনীল কুণ্ডুর প্রথম পক্ষের স্ত্রী ও ছেলে মেয়ে রয়েছে। দ্বিতীয় বিয়ের পর তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এবং আন্না হালদারের প্রথম পক্ষে রয়েছে একটি ছেলে এবং তার স্ত্রী। তাদের সঙ্গে একই বাড়ীতে না থাকলেও নিয়মিত যোগাযোগ ছিল বলেও জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকতেই দেখা যায়, এক ঘরে বিছানায় পড়ে আন্না। তাঁর মাথায় আঘাতের চিহ্ন ও রক্তে বিছানা ভেসে যাচ্ছে। অন্যঘরে সুনীল। তাঁর দেহের পাশে কীটনাশকের শিশি। এরপরই দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

জানাগেছে, প্রথমে বারংবার ফোন না ধরায় সন্দেহ হয় মৃতা আন্না হালদারের প্রথম পক্ষের পুত্রবধূর। এরপরই এক এক করে খবর দেওয়া হয় মৃতার দিদি এবং স্থানীয় পুলিশকে। এরপরই পুলিশ এসে ঘরের দরজা ভেঙে উদ্ধার করে দুটি মৃতদেহ।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, স্ত্রীকে খুনের পর আত্মহত্যা করেছেন সুনীল। কিন্তু কেন? কারণ নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। তদন্তে নেমেছে স্থানীয় পুলিশ।

46