“১০০ দিনের টাকা দাও, নাহলে বিদায় নাও।” পুরুলিয়ার জনসভা থেকে কেন্দ্র কে কটাক্ষ মমতার

ওয়েবডেস্কঃ

পঞ্চায়েত ভোটের আগে তিনদিনের জঙ্গলমহল সফরে গিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয়বার নির্বাচনে জিতে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর এটাই প্রথম মুখ্যমন্ত্রীর পুরুলিয়া সফর।
সোমবার পুরুলিয়ায় প্রশাসনিক বৈঠক করার পর এদিন পুরুলিয়ায় কর্মিসভা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই সভা থেকে দলীয় কর্মীদের বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি মঞ্চ থেকে বারবার বিরোধীদের কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন, কেন্দ্রের তরফে বারবার আর্থিক বঞ্চনার শিকার হচ্ছে রাজ্য বলে আক্রমণ শানান তিনি। বলেন, “মোদি সরকার ভেজাল সরকার। ভোট এলে উজালা, ভোট কাটলে ঘোটালা। আমাদের টাকা তুলে নিয়ে যাচ্ছে বিজেপি সরকার। ১০০ দিনের টাকা দাও, নয়তো বিদায় নাও।”

ইডি-সিবিআই দিয়ে তাঁদের ভয় দেখানো যাবেনা বলেও এদিনের কর্মিসভায় হুঙ্কার দেন মুখ্যমন্ত্রীর। তিনি বলেন, “কখনও লালু প্রসাদের বাড়িতে কেন্দ্রীয় এজেন্সি পাঠানো হচ্ছে, কখনও হেমন্ত সোরেনের বাড়িতে যাচ্ছে সিবিআই। কিন্তু বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে কেউ কোনও কথা বলছে না। বিজেপি নেতাদের গেপ্তার করা উচিত। সবকটাকে জেলে পুরুক সিবিআই।”

সোমবার শ্যামনগরে সিবিআইয়ের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। এবার একই সুর মমতার গলায়।বিজেপি সাংসদ, বিধায়কদেরও খোঁচা দিতে ছাড়েননি তিনি। মমতার দাবি, ২০২৪-এ বাংলায় বিজেপির ‘নো এন্ট্রি’।

পাশাপাশি, সমস্ত ভুল শুধরে নিয়ে দলীয় কর্মীদের এদিন উন্নয়নের পথে হাঁটার বার্তা দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। “কর্মীরা কোনও অন্যায় করবেন না।”কর্মীদের উদ্দেশে এননভাবেই বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী ।

96