সৃজনশীল লেখার কর্মশালা
ইটাহারের ড.মেঘনাদ সাহা কলেজে

কলেজ পড়ুয়াদের মধ্যে সৃজনশীল লেখার প্রবণতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ইটাহারের ড.মেঘনাদ সাহা কলেজের কৈলাসবাসিনী সেন্টার ফর ওমেনের উদ্যোগে এবং রবীন্দ্রনাথ টেগোর কালচারাল সেন্টারের সহযোগিতায় মঙ্গলবার এক দিবসীয় একটি বিশেষ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছিল।

গতানুগতিক পঠন-পাঠনের বাইরে এ ধরনের আয়োজনের খবর পেতেই পড়ুয়ারা সেমিনার হলে ভিড় জমিয়েছিলেন। এদিনের সৃজনশীল লেখা কর্মশালার প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড.পৃথা কুণ্ড । তিনি দক্ষিণেশ্বর হীরালাল মজুমদার মেমোরিয়াল কলেজ ফর ওমেনের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপিকা এবং ওমেন স্টাডিজের কো-অর্ডিনেটর। উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজের প্রশাসক ড. সুব্রত সাহা। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জয় গোপাল বিশ্বাস, আইকিউ এসির কোওর্ডিনেটর অধ্যাপক অঞ্জন সোম, কালচারাল সেন্টারের অধিকর্তা এবং ন্যাক কনভেনার অধ্যাপক সুকুমার বাড়ই সহ অন্যান্য অধ্যাপক অধ্যাপিকা , শিক্ষাকর্মী ও পড়ুয়া।

মূল বক্তা ড.পৃথা কুন্ডু তাঁর দীর্ঘক্ষণের বক্তব্যে সৃজনশীল লেখার প্রাসঙ্গিকতা, ব্যবহারিক কৌশল এবং গুরুত্ব বিষয়ে আলোকপাত করেন। কবিতা, গদ্য, রম্য রচনা লেখাতে কিভাবে সৃজনশীলতা প্রকাশ পায় তার পুঙ্খানুপুঙ্খ ব্যাখ্যা করেন পড়ুয়াদের সামনে।

কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী অনুরাধা মন্ডল ও আবুজার হোসেনের কথা, নতুন বিষয়ের একটি কর্মশালায় যোগ দিয়ে অনেক কিছু জানতে পারলাম। ধন্যবাদ জ্ঞাপক বক্তব্য পেশ করেন সহযোগী আয়োজক সংস্থার অধিকর্তা সুকুমার বাড়ই। সমগ্র কর্মশালাটি সুপরিকল্পিতভাবে সঞ্চালনা করেন কৈলাসবাসিনী সেন্টার ফর ওমেনের অধিকর্তা ও ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপিকা সঞ্চয়িতা পাল চক্রবর্তী।

89