Categories
আশেপাশের খবর

নিত্য দিনের যানজটে জেরবার মুঘল আমলের গুরুত্বপূর্ণ এই শহরটি

ওয়েবডেস্কঃ মুঘল আমল থেকেই মালদহের ইতিহাসে এক গুরুত্বপূর্ণ স্থান চাঁচল।বর্তমানে উত্তর মালদহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শহর হলো চাঁচল। সেই চাঁচল শহরে নিত্যদিনের যানজটে পড়ে জেরবার ছাত্রছাত্রীসহ সাধারণ শহরবাসী। সাধারণত চাঁচোল শহরের শান্তি মোড় থেকে বারোগাছিয়া মোড় এবং শহরের প্রাণকেন্দ্র নেতাজি মোড়ে তীব্র যানজটে পড়ে নাকাল হচ্ছেন সকলে।অন্যদিকে পার্কিংয়ের জায়গা না থাকায় রাস্তায় দাড়িয়ে থাকে গাড়িগুলি।সাধারণত একটি এলাকার মানুষের উন্নতির একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হলো পরিবহন ও যোগাযোগ ব্যবস্থা। কিন্তু চাঁচোলের যানজট যেন সময় অপচয় ও পথখরচ বাড়িয়ে দিয়েছে নাগরিকদের। মালদা, রতুয়া, গাজোল, হরিশচন্দ্রপুর, রায়গঞ্জ, কাটিহার রুটে যাতায়াতের জন্য গাড়িগুলিকে চাঁচোলের মধ্য দিয়েই যেতে হয়।তাছাড়া কোর্ট, মহকুমা অফিস , আঞ্চলিক পরিবহন দপ্তর, মহকুমা পুলিশ আধিকারিকের অফিস, ব্লক আধিকারিকের অফিস, থানা সহ বিভিন্ন অফিসের কাজে ও ব্যবসা বাণিজ্যের সুবাদে মহকুমার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ চাঁচোলে আসেন। ফলে যতটা যানবাহন, পথযাত্রী বেড়েছে, সেই তুলনায় বাড়েনি রাস্তার দুইধার।ফলে সৃষ্টি হচ্ছে তীব্র যানজট। রাস্তায় আটকে পড়ে দুরপাল্লার গাড়িগুলি।যানজট নিরসনে চাঁচোল থানার পুলিশ ও চাঁচোল ট্রাফিক পুলিশ সদর্থক ভূমিকা পালন করলেও রাস্তার সংকীর্ণতার কারনে বেউপায় তারা।
উল্লেখ্য কিছুদিন আগে মালদহের প্রশাসনিক বৈঠকে জেলা পরিষদ সদস্য মহম্মদ সামিউল ইসলাম মুখ্যমন্ত্রীর কাছে স্থায়ী বাসস্ট্যান্ডের দাবি করলে তাতে মুখ্যমন্ত্রী সাই দেন তবে সেটা বাস্তবায়ন হলেও অনেকটাই যানজট নিরসন হবে বলে প্রত্যাশা জনগণের। চাঁচোলের একাংশ নাগরিক মনে করেন চাঁচোলকে পুরোপুরি যানজট মুক্ত করতে ৮১ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে বিশেষ করে নজরুল বাস টার্মিনাল আশেপাশের রাস্তার দু’ধারের সরকারি খাসজমি গুলিকে দখল করে গড়ে ওঠা অবৈধ নির্মাণসহ অস্থায়ীভাবে বসা দোকানগুলোকে উচ্ছেদ অভিযানে নামা । অনেক দোকানের সামনে সম্প্রসারিত অংশগুলিকে ভেঙে দেওয়া দরকার । চাঁচোলের স্থায়ী বাসিন্দা আবু পারভেজ নুর ওরফে লায়ন বলেন, প্রশাসনের দ্বারা শক্তভাবে উচ্ছেদ অভিযান চালানো না হলে একদিন চাঁচোল অবরুদ্ধ হয়ে উঠবে, যান চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়বে তাই সরকার ও প্রশাসনের দরকার শীঘ্রই উচ্ছেদ অভিযান চালানো।

117

Leave a Reply Cancel reply