Categories
কুলিক রোববার

কুলিক রোববার : মুক্তগদ্য : এবং অনন্ত ভুলদানি

সন্দীপ কুমার ঝা

ভুল একবার নয়,বারবার করা দরকার।এটা পরীক্ষা করার জন‍্যে যে,আগের ভুলগুলো সত্যিই ভুল ছিল কিনা!

এভাবে একটা ভুল।তারপর সেটা পরীক্ষার জন‍্য আরও একটা।তারপর সেটার সম্পর্কে নিশ্চিত হতে আবার একটা। তারপর এবং এবং এবং…এভাবেই এখন আজ-কাল-পরশুর নির্মাণ!

এসব কেবল মজার জন‍্য বলা!এমনটা হয় না কখনও। অথবা হয়।

কোনও এক রাতে হঠাৎ অশুভ লগ্নের সাথে,অশুভ তিথি-নক্ষত্রের যোগসাজশ হয়!হতে পারে।সেদিন সব কবর থেকে,সব চিতা থেকে-ভুলেদের প্রেত উঠে আসে।অর্জিত সমস্ত উচ্চতা ঢেকে যায়।সব আলো ঢেকে যায় কালো হয়ে।অশুভ বিড়ালের মত!

এমন কোনো এক শেষ দিনে, শনির ঘাড়ে সব দোষ দিয়ে আমরা সবাই,বসে থাকব এক ভুল-পাহাড়ের নীচে।বেকুবের মত।দুই হাত,দুই পায়ের সবকটা আঙুলের সবকটা সন্ধি,সবকটা কর দিয়ে,শুধু ভুল গুনে গুনে,ফতুর হয়ে যাব। সামনে ঝুলে থাকবে-হারামির মত একটা জীবন!

সে জীবন ভুলভাল দিকে ধোঁয়া হয়ে,ফুঃ হয়ে উড়ে গেলেও তত চিন্তা নেই,কিন্তু ভুলের সঠিক হিসাবটা তখনও আগলে রাখাটা খুব জরুরি হয়ে থাকবে।

আসলে ভুল করে চলাটা তত খারাপ কিছু নয় কিন্তু ভুলকে ভুলে যেতে দেওয়া অথবা ইচ্ছে করে হারিয়ে ফেলতে চাওয়াটা,খুব খারাপ!যে মরেই আছে,দরকার হলে তার বুকের উপরে হাঁটু গেড়ে বসো।শব সাধনায় বসো।নিজের প্রাপ্তি-সিদ্ধি বুঝে নাও।হিসাব মেলাও।মেলাতেই হবে।এমনটাই দস্তুর।

এভাবে গুনে যেতে যেতে আজ সব গণনাই শেষ !আশ্চর্য,তবু গণনাটুকুই এখনো অবশিষ্ট কাজ!

জীবন পোড়া গন্ধ,আস্তে আস্তে ঘিরে ধরছে আমাদের!এখনো তবু বেয়াক্কেলের মত,

দুলে দুলে,ভুলের নামতা পড়ছি!

..এক এক্কে এক,    দুই দুইয়ে চার…

56

Leave a Reply Cancel reply