বাড়ির কাছেই কুপিয়ে খুন ১২ বছরের স্কুল পড়ুয়া

ওয়েবডেস্ক : বাড়ি থেকে প্রায় ৩০ মিটার দুরে এক নাবালক ছাত্রের ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য এলাকায়। ওই ছাত্রকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করেছে দুষ্কৃতীরা বলে অভিযোগ পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি স্হানীয় বাসিন্দাদের। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার চাকুলিয়া থানার কানকি ফাঁড়ির মাটয়ারী এলাকায়। স্হানীয় সূত্রে জানা গেছে মৃত ওই নাবালক ছাত্রের নাম বিশাল শা (১২)। ওই ছাত্র কানকি শ্রী জৈন বিদ্যা মন্দিরের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ছিল। শনিবার দুপুরে খেলার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ছিল ওই নাবালক শিশুটি। সন্ধ্যা হয়ে গেলেও বাড়ি না আসলে পরিবারের সদস্যরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাত প্রায় ৯ টা নাগাদ বাড়ির পাশে একটি মাঠের দেওয়ালের পাশে কাপড়ের মধ্যে পেচানো আহত অবস্থায় উদ্ধার হয়। এবং তার শরীরের একাধিক জায়গায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত পাওয়া গেছে। তাকে উদ্ধার করে কিষানগঞ্জ মেডিক্যালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। এই ঘটনায় শোকের ছায়া গোটা এলাকায়। এই ঘটনার সাথে যারা জড়িত আছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দা থেকে পরিবারের সদস্যরা। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে চাকুলিয়া থানার কানকি ফাঁড়ির পুলিশ। পুলিশ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এবিষয়ে কানকি ফাঁড়ির ইনচার্জ প্রণব সরকার ফোনে জানিয়েছেন নাবালক ছাত্রের বা হাতের শিরা কাটা রয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। এই ঘটনায় পুলিশ স্হানীয়দের সাথে জিজ্ঞাসা বাদ শুরু করেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে চাকুলিয়া থানার কানকি ফাঁড়ির পুলিশ।

247