বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে কংগ্রেসের নিশানায় এবার কর্নাটক রাজ্য বিজেপি সভাপতি

ওয়েবডেস্কঃ বিটকয়েন কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে আসার পরেই কর্নাটক রাজ্যের কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে বিতণ্ডা চরম পর্যায়ে পৌঁচেছে। কংগ্রেসের দাবি, বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে কয়েক হাজার কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে এবং শাসকদলের প্রভাবশালী নেতারা মূল চক্রী শ্রীকির মাধ্যমে অনৈতিক ভাবে প্রচুর টাকা পেয়েছেন। এই সময় কংগ্রেসের তরফে বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাইকে নিশানা করার পর এবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি নলিন কুমার কাটিলের দিকে আঙ্গুল তুললো।

কর্নাটক রাজ্য বিজেপি সভাপতি

রাজ্যের কংগ্রেস বিধায়ক প্রিয়ঙ্ক খাড়গে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে রাজ্য বিজেপি সভাপতির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। নিজের পোষ্টে তিনি বলেন, বিটকয়েন কেলেঙ্কারি প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি সভাপতি নলিন কুমার কাটিলের নীরবতা দেখে তিনি বিস্মিত।

নিজের পোষ্টে তিনি আরও লেখেন, আমি নিশ্চিত যে তিনি বিটকয়েন কেলেঙ্কারি অনেক কিছুই জানেন। তাঁর নীরবতা ভঙ্গ করা উচিৎ। নাহলে সাধারণ মানুষের তাঁর নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন জাগবে।

https://kulikinfoline.com/2021/11/15/essay_on_birsa_munda_by_goutam_das/ অবসরের পরে পেনশন দেওয়ার প্রস্তাব পেশ করেছে সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটি।

যদিও প্রিয়ঙ্ক খাড়গের এই পোষ্ট প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করেননি কর্ণাটক বিজেপি সভাপতি। বিরোধীদের অভিযোগ, বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে রাজ্যের শাসক দল বিজেপির প্রথম সারির নেতৃত্ব জড়িত।

এর আগে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা সিদ্দারামাইয়া বলেন, আন্তর্জাতিক এই কেলেঙ্কারিতে শাসকদলের প্রভাবশালী নেতৃত্ব জড়িত।

সিদ্দারামাইয়া আরও বলেন, বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে এক বড়োসড়ো আর্থিক কেলেঙ্কারি হয়েছে। প্রধান অভিযুক্তের কাছেই মূল পাসওয়ার্ড আছে এবং এই ঘটনায় কোনো লিখিত তথ্য নেই। তাই শ্রীকির জীবনের ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে।

234