Categories
crime

টাকার জন্য নাটক অপহরণের

ওয়েবডেস্ক: লক্ষ্য ছিল যে সংস্থায় তিনি কর্মরত তাঁদেরই ১১ লক্ষ টাকা লোপাটের। তার জন্য আত্মীয়কে নিয়ে অপহরণের গল্প ফেঁদেও শেষ রক্ষা হল না। পুলিশের জালের ধরা পড়ল ‘অপহৃত’ যুবক নিজেই! রাজগঞ্জের পাগলাহাটের ঘটনা। ধৃতের নাম পরিতোষ রায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজগঞ্জের পাগলাহাটের বাসিন্দা পরিতোষ একটি বেসরকারি অর্থলগ্নি সংস্থায় কাজ করেন। ওই যুবকের সাজানো বয়ান অনুযায়ী, মঙ্গলবার দুপুরে সংস্থার ১১ লক্ষ ৫ হাজার টাকা ব্যাংকে জমা দিতে সে বাইকে ফুলবাড়ি থেকে শিলিগুড়ি যাচ্ছিল। পথে উত্তরকন্যা লাগোয়া ওভারব্রিজের কাছে ওই যুবক বাইক দাঁড় করায়। সেসময় তিন-চারজন দুষ্কৃতী একটি ছোট গাড়ি নিয়ে এসে ওই যুবককে অপহরণ করে। দুষ্কৃতীরা টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। সন্ধ্যায় মালবাজার ব্লকের ক্রান্তি পুলিশ ফাঁড়ির মসজিদপাড়া এলাকায় বেসামাল অবস্থায় ঘুরতে দেখে তাকে সিভিক ভলান্টিয়াররা ফাঁড়িতে নিয়ে যান। সেখান থেকে পরিতোষ ফোনে তার স্ত্রীকে বিষয়টি জানায়।

শুক্রবার নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তার তিন সঙ্গীকে আগেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধৃতরা হল রাজগঞ্জের সুভাষপল্লির আশিস বিশ্বাস, ভরপাড়ার সঞ্জয় মোদক ও রামনাবান্ধা এলাকার শ্যামল রায়। শ্যামল ওই যুবকের নিকট আত্মীয়। পাশাপাশি সে তৃণমূলের এসসি-এসটি-ওবিসি সেলের মাঝিয়ালি গ্রাম পঞ্চায়েতের অঞ্চল সম্পাদকও বলে জানা গিয়েছে।

এদিন পরিতোষকে জলপাইগুড়ি আদালতে তোলা হয়। তার তিনদিনের পুলিশ হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। তবে খোয়া যাওয়া ১১ লক্ষ ৫ হাজার টাকা এখনও উদ্ধার হয়নি। সেই টাকা উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ।

45

Leave a Reply