Categories
কুলিক রোববার

কুলিক রোববার : কবিতা: ছাতারেদের ছানা

পাপিয়া চক্রবর্তী

দুষ্টু বেজায় হয়েছে ভাই ছাতারেদের ছানা
সন্ধ্যে হলো তবু বলে, “ঘরে যাবো না, না”।
মা ডাকছে, মাসী ডাকছে,ডাকছে দিম্মা, ঠামি
তবু বলে,”থাকবো গাছেই,ঘরে যাবোনা আমি।”

মা বলছে,” লক্ষীবাবা আমার কথা শোন
রাতের বেলা নয় নিরাপদ, ঝোপ জঙ্গল বন।”
বাবা বলছে ,”জেদ কোরোনা,চলো শীগগীর ঘরে”
তবু ছানা রইলো বসে, ঘাড়খানা কাৎ করে।
ঠাম্মা কত গল্প শোনায়, দিম্মা শোনায় গান
জেদি ছানা বসেই থাকে দেয় না সে সবে কান

মায়ের মুখে আঁধার ঘনায়, সুজ্জো গেছে ডুবে
সব পাখিরা ফিরছে বাসায় নদী মাঠঘাট থেকে
রাতের বেলা বিপদ ঘোরে হুতুম প্যাঁচার বেশে
সবার ছানা লুকিয়ে থাকে মায়ের বুকে মিশে
এসব কথা জানেনা কিছুই ছোট্ট ছাতারে ছানা
ডাকছে বড়োরা,”আয় ঘরে আয়,লক্ষী বাবাসোনা”
আদর করে ডাকলো মা, চুমু দিলো গালে
জিদ্দি ছানা রইলো বসেই শিউলি ফুলের ডালে

কি করবে আর,আঁধার হতেই লুকোলো গাছের ডালে
থাকলো সবাই পাতার আড়ে,গেলো না ছানাকে ফেলে
রাত জাগলো ছাতারেরা ঘুম এলোনা চোখে
ছানা বুঝি ওই গেলো পড়ে গাছের শাখা থেকে
ছোট্ট পায়ে এখনও তো ধরতে পারেনা ডাল
ভেবে নামে জলের ধারা বেয়ে মায়ের গাল
ছানা কিন্তু দিব্যি ঘুমোয় একদিকে হয়ে কাৎ
মা ভাবে কাটে না কেন, এই পোড়া রাত!

পুব আকাশে আলো ফুটতেই মা বাঁচে হাঁফছেড়ে
ছানাকে বলে,”ওঠ্ শীগগীর, বাড়িতে যাবি উড়ে। “
আলসে ছানা ঘুমিয়ে কাদা ওঠেনা কিছুতে
জাগলো শেষে বাবার গলার এক বকুনিতে
মা, মাসী, ঠাম্মা, দিদা সবাই ঘিরে ধরে
বললো,”হয়েছে,আর জেদ নয়,এবার চলো ঘরে।”
হাই তুলে বললো ছানা,”আচ্ছা,ঠিক আছে চলো”
অবশেষে দস্যি ছানা বাড়ি ফিরে গেলো।

24

Leave a Reply