Categories
আশেপাশের খবর

একই বেডে ৪ শিশু! ক্ষুব্ধ জেলা শাসক

ওয়েবডেস্ক, জলপাইগুড়িঃ একটি বেডে চারজন শিশুর চিকিৎসা! চাঞ্চল্যকর অভিযোগ জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালের বিরুদ্ধে। রোগীর পরিজনের অভিযোগ, ‘রোগীর তুলনায় হাসপাতালে শয্যা যথেষ্ট কম। এক-একটি শয্যায় চার জন করে শিশুকে রাখতে বাধ্য হচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এমনকি, ওই শয্যাতেই রোগীর মায়েরাও থাকছেন।’

জ্বর-সর্দিতে আক্রান্ত শিশুরা একই বেডে থাকলে যারা সুস্থ হয়ে উঠছিল, তারাও আবার আক্রান্ত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন অভিভাবকেরা।

যদিও এই অভিযোগ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি নন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ফলে হাসপাতালে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন রোগী সহ পরিবার সকলেই।

রোগীর এক আত্মীয় মোস্তাফা হোসেনের দাবি, ‘‘হাসপাতালে পরিষেবার নামে প্রহসন হচ্ছে। রোগীর তুলনায় বেড কম। এক-একটা বেডে চার জন করে শিশু। রোগীদের সঙ্গে তাদের মায়েরাও রয়েছেন। ফলে একটা বেডে চার জন শিশু ও অভিভাবক মিলিয়ে আট জন করে থাকছেন। অক্সিজেন নেওয়ার জন্য দু’টি মাত্র মেশিন। সে জন্য লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে। চিকিৎসকও কম। আমাদের হয়রানির মুখে পড়তে হচ্ছে।’’

তবে ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বলেন, ”হাসপাতালের জন্য বেড কেনা হয়েছে। কিন্তু শিশুদের চিকিৎসার জন্য কেন সেই বেড দেওয়া হয়নি তা নিয়ে মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের সঙ্গে কথা বলব।”

সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সেপ্টেম্বর থেকে এখনও পর্যন্ত জলপাইগু়ড়িতে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে মারা গিয়েছে চারটি শিশু। যদিও বেসরকারি মতে, ওই সংখ্যাটি কমপক্ষে নয় জন। হাসপাতাল সূত্রে খবর, রবিবার রাত পর্যন্ত শিশু বিভাগে ১২১ জনের চিকিৎসা চলছিল। সোমবার জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আরও ২৪টি শিশুকে ভর্তি করানো হয়েছে।

98

Leave a Reply Cancel reply