Categories
অন্য খবর

সাহিত্য অ্যাকাডেমির ‘ফেলো’ নির্বাচিত হয়েছেন ‘মানবজমিন’-এর স্রষ্টা

ওয়েবডেস্কঃ সাহিত্য অ্যাকাডেমির সর্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত হলেন বর্ষিয়ান সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে আরও ৭ জন ভারতীয় লেখককেই সম্মানে ভূষিত করল সাহিত্য অ্যাকাডেমি।

তালিকায় রয়েছেন ছোটদের প্রিয় লেখক, রাসকিন বন্ড (ইংরাজি), মারাঠি কবি-প্রাবন্ধিক বালচন্দ্র নেমাডের নামও।

সাহিত্য অ্যাকাডেমির বাংলা উপদেষ্টা পর্ষদের অন্যতম সদস্য বিশিষ্ট কবি সুবোধ সরকার ফেসবুকে পোস্টে অভিনন্দন জানিয়ে লেখেন , “শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় সাহিত্য অকাদেমির সবচেয়ে বড় সম্মানে ভূষিত হলেন আজ। তিনি অকাদেমির ‘ফেলো’ নির্বাচিত হয়েছেন। সঙ্গে আরও সাতটি ভাষা থেকে আরও সাতজন ভারত বিখ্যাত লেখককে সম্মান জানাল সাহিত্য অকাদেমি। যেমন রাসকিন বন্ড আছেন, তেমনি আছেন বালচন্দ্রন নেমাড়ে। একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে শীর্ষেন্দুদার হাতে অকাদেমি এই সম্মান তুলে দেবে। বাংলায় সুভাষ মুখোপাধ্যায় নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী শঙ্খ ঘোষ-এর পর অনেকদিন বাদে আবার একজন কথাসাহিত্যিক ফেলো নির্বাচিত হলেন। শীর্ষেন্দুদা, আপনার সম্মানে আমরা আজ সম্মানিত”।

১৯৮৯ সালে ‘মানবজমিন’ উপন্যাসের জন্য সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। তাঁর ঝুলিতে রয়েছে বিদ্যাসাগর পুরস্কার (১৯৮৫), আনন্দ পুরস্কার (১৯৭৩ ও ১৯৯০)। ২০১২ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে বঙ্গবিভূষণ সম্মানও পান ।

১৯৬৭ সালে প্রথম উপন্যাস ‘ঘুণপোকা’-র সঙ্গে পাঠক মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। ‘কাগজের বউ’, ‘যাও পাখি’, ‘মানবজমিন’, ‘দূরবীন’-এর মতো কালজয়ী উপন্যাস বাঙালিকে উপহার দিয়েছেন তিনি। কিশোর-কাহিনিতেও তাঁর জুড়ি মেলা ভার। ‘গোঁসাইবাগানের ভূত’, ‘মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি’,‘পাতালঘর’- শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের অমর সৃষ্টি।

এর আগে আগে সুভাষ মুখোপাধ্যায়, নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী, শঙ্খ ঘোষের মতো ব্যক্তিত্বরা সাহিত্য অ্যাকাডেমির ‘ফেলো’ নির্বাচিত হয়েছেন।

50

Leave a Reply