Categories
শিক্ষা

দীর্ঘ ১৮ মাস পর শ্রেণিকক্ষে ফিরলো বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা!

ওয়েবডেস্কঃ মহামারির কারণে প্রায় ৫৪৩ দিন আগে বন্ধ করে দেওয়া হয় সেই দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বর্তমানে সংক্রমণের হার কম হওয়ায় রোববার থেকে খুলে দেওয়া হল স্কুল-কলেজ গুলি। করোনার কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছিল সরকার। এরপর গত ফেব্রুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত একাধিকবার শিক্ষার্থীদের শ্রেণি কক্ষে ফেরাতে উদ্যোগ নেওয়া হলেও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় তা আর হয়ে ওঠেনি।

সব রকমের Covid-19 গাইডলাইন মেনেই ছাত্রছাত্রীদের স্কুলে আসার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা মেপে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করানো হচ্ছে। সাথেই তাদের হ্যান্ড স্যানিটাইজ করারও কথাও বলা হচ্ছে এবং করানো হচ্ছে।

স্কুলে ছাত্রছাত্রীদের ফুল এবং চকলেট দিয়ে ছাত্রছাত্রীদের বরণ করেন শিক্ষকরা। স্কুলের ভিতরে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায়, তাই পড়ুয়াদের অনুমতি দেওয়া হলেও, তাঁদের অভিভাবকদের স্কুলে প্রবেশের অনুমতি প্রদান করা হয়নি।

দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মিলে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় সোয়া ৩ কোটি শিক্ষার্থী রয়েছে। তবে প্রাক-প্রাথমিক স্তরে এখন শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাবে না। আর স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হলেও এখনও বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন , বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী দিপু মণি । তিনি আরও বলেন , এই মুহূর্তে, সপ্তাহে শুধুমাত্র একদিন করেই ক্লাস হবে স্কুলগুলিতে। এছাড়াও সব স্কুলগুলিকে কড়া গাইডলাইন মেনে চলতে হবে। কিন্তু, যদি দেখা যায় যে সংক্রমণের মাত্রা বাড়ছে, সেক্ষেত্রে সরকার ফের অনলাইন ক্লাস চালু করার কথা ভাবনাচিন্তা করতে পারে বলে জানান সেদেশের শিক্ষামন্ত্রী।

38

Leave a Reply