Categories
রাজ্য

ভুয়োর তালিকায় নতুন সংযোজন ! এবার পুলিশের হাতে এলো ভুয়ো ডিএসপি

ওয়েবডেস্কঃ একটি স্করপিও গাড়িতে বসে দুই সঙ্গীর সঙ্গে রীতিমতো বসেছে মদের আসর। কারো নজরে না পরার জন্য তোলা গাড়ির কাঁচ। তার মধ্যে একজনের পরনে প্রশাসনের পোশাক। সেই গাড়িতে আবার সাঁটানো হুটার ও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্টিকার !

বুধবার রাতে চন্দননগর স্ট্যান্ড থেকে মদ্যপ অবস্থায় ওই ভুয়ো পুলিশ অফিসারকে গ্রেপ্তার করে চন্দননগর কমিশনারেটের পুলিশ । ভুয়ো ডিএসপি পদমর্যাদার ওই পুলিশ অফিসারের নাম সিদ্ধার্থ চক্রবর্তী । বাড়ি চন্দননগরের বক্সি গলিতে।

বুধবার গভীর রাতে চন্দননগর থানার ১০০ মিটারের মধ্যে রানীঘাটে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্টিকার লাগানো নীলবাতির হুটার লাগানো গাড়িটি নিয়ে প্রথম থেকেই সন্দেহ ছিল পুলিশের। গাড়ির সামনে আবার লাগানো লাল বাতি। গাড়িটির ভিতরে নজর রাখতেই দেখা গেলো সামনের আসনে ডিএসপি’র পোশাক পরে বসে মদ্যপান করছেন সিদ্ধার্থ।

জানা গিয়েছে , ধৃত সিদ্ধার্থ চন্দননগরের একটি কলেজ থেকে ২০১৩ সালে ইংরেজিতে অনার্স নিয়ে পাস করে। এরপর জেলা প্রশাসনের গাড়ি চালাত বলে জানায় অভিযুক্ত। পরে একটি ওষুধের কোম্পানিতে কিছুদিন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের কাজ করে। এবং সেই কাজ ছেড়ে দিয়ে ভুয়ো ডিএসপি অফিসারের পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণা শুরু করে। বছর তিনেক আগে বিয়েও করেছে সে । স্ত্রী একটি বেসরকারি নামী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের শিক্ষিকা।

চন্দননগরের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, তারা ওই ব্যক্তিকে পুলিশ অফিসার বলেই জানতেন। কিন্তু পুলিশের পোশাকের আড়ালে যে এত বড় প্রতারণার গল্প লুকিয়ে ছিল, তা কেউ স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেননি।

বুধবার ধৃতকে চন্দননগর মহকুমা আদালত তাকে পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয়। ঘটনার বিস্তারিত তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

61

Leave a Reply