Categories
রাজ্য

এনআরসি-তে দেরি, তাই সিএএ চান দিলীপ

ওয়েবডেস্কঃ

জাতীয় নাগরিকপঞ্জির কাজ কবে শুরু হবে তা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়নি কেন্দ্র। দেশ জুড়ে ওই তালিকা তৈরি হওয়ার আশু কোনও সম্ভাবনা নেই বুঝে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব চাইছেন, এনআরসি-র আগে বরং পশ্চিমবঙ্গে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) কার্যকর হোক। যা রূপায়িত হলে বাংলাদেশ থেকে ধর্মীয় অত্যাচারের কারণে পালিয়ে আসা মূলত বাঙালি হিন্দুদের নাগরিকত্ব দেওয়া সম্ভব হবে। নির্বাচনী ইস্তাহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা হবে বিজেপির। আজ এ প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘সিএএ হলেই এনআরসি-র কাজ অর্ধেক হয়ে যাবে।’’

কবে থেকে দেশে এনআরসি চালু হবে, সেই সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই বলেছেন, ‘‘জাতীয় স্তরে এনআরসি করার প্রশ্নে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি কেন্দ্র।’’

মন্ত্রীর ওই উত্তরে বিজেপি সূত্রে বলা হয়েছে, ‘‘বহিরাগতদের চিহ্নিত করার প্রশ্নে দেশের প্রতিটি ব্যক্তির তথ্য যাতে এক জায়গায় থাকে, তার জন্য একটি অভিন্ন নাগরিকপঞ্জি বানানোর দাবি দীর্ঘ দিন ধরে করে আসছে দল। যা রূপায়ণ করার আশ্বাসও দিয়েছে কেন্দ্র। কিন্তু সরকারের গত কালের বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট, দেশ জুড়ে এনআরসি-র বিষয়টি এখনও প্রস্তাব আকারে রয়েছে। সরকার এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। দেরি হলেও ২০২৪ সালের লোকসভা ভোটের আগে এনআরসি যাতে হয়, তার জন্য সরকারের উপর চাপ
বাড়াবে দল।’’

অপরদিকে, রাজ্যে একুশের নির্বাচনের প্রচারে এসে একবারের জন্যও এনআরসি প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করেননি মোদী এবং শাহ। এনআরসি নিয়ে কেন্দ্র এখনও কোনও চিন্তা ভাবনা করেনি বলেই বার্তা ছিল বিজেপির এই দুই শীর্ষ নের্তৃত্বের। তৃণমূলের দাবি, নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করার মাধ্যমেই আসলে এনআরসি-র প্রক্রিয়া করতে চায় কেন্দ্র। যদিও বরাবরাই এই দুটি প্রক্রিয়া পুরোপুরি পৃথক বলেই দাবি করেছে গেরুয়া শিবির।

33

Leave a Reply