Categories
অন্য খবর

করোনায় মারা গেছে বাবা মা। অনাথ ছোট্ট ভনিশাই CBSE দশম শ্রেণির পরীক্ষায় দেশে তৃতীয়

ওয়েবডেস্কঃ মাত্র দিন কয়েকের ব্যবধানে দুমাস আগেই মহামারী কেড়ে নিয়েছে বাবা ও মাকে। অনাথ দশ বছরের ছোট ভাইকে নিয়ে ভোপালের ভনিশা। কিন্তু জীবনের কাছে হার মানেনি এই দুই খুদে প্রাণ।

ভনিশার মনে রয়েছে বাবা-মায়ের বলা শেষ শুধু একটাই কথা, “হিম্মত রাখনা”। সিবিএসই-র দশম শ্রেণির পরীক্ষায় মা-বাবার কথা ও নিজের উপর বিশ্বাস রেখেই ইংরেজি, সংস্কৃত, বিজ্ঞান ও সমাজ বিজ্ঞানে ১০০-এ ১০০ পেল সে। অঙ্কতেও খারাপ নয়, ৯৭ পেয়েছে সে। পারিবারিক বিপর্যয়ের পরও ১৬ বছরের কিশোরীর দারুণ ফল নজর কেড়েছে সকলের।

রেজাল্ট প্রকাশিত হতেই দেখা গেল, চরম মানসিক চাপের মধ্যেও দারুণ ফল করেছে বছর ১৬-র কিশোরী। এই সাফল্যের নেপথ্য কাহিনী জানতে চাইলে ভনিশা বলে, “আমার মা-বাবার স্মৃতিই আমায় বরাবর অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে। এখন আমার ভাইই আমার এগিয়ে চলার শক্তি। কারণ আমি ছাড়া ওঁর আর কেউ নেই, তাই ওঁর জন্য আমায় কিছু করতেই হবে।”

ভনিশা বলে, “আমার মায়ের শেষ কথা ছিল, নিজের উপর বিশ্বাস রেখ। আমরা তাড়াতাড়িই ফিরে আসব। বাবা বলেছিল, নিজেকে শক্ত রেখ।” মা-বাবা যখন একসঙ্গে হাসপাতালের উদ্দেশ্য রওনা দিয়েছিল, শেষ দেখা তখনই হয়েছিল বলে জানায় ভনিশা।

মা-বাবাকে হারানোর পর কাকা ডঃ অশোক কুমারের কাছেই ভাইকে নিয়ে থাকে ভনিশা। আইআইটিতে সুযোগ বা ইউপিএসসি দিয়ে বাবার স্বপ্নই ভবিষ্যতে পূরণ করতে চায় ভনিশা।

119

Leave a Reply