Categories
জেলার খবর

কংগ্রেস নেতার রহস্যজনক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য

ওয়েব ডেস্ক জুলাই ২০,২০২১:বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে মুখে তৃনমূল কংগ্রেসের পতাকা জড়ানো কংগ্রেসের বুথ সভাপতির ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার গৌরী গ্রামপঞ্চায়েতের দক্ষিন বিষ্ণুপুর গ্রামে। মৃত ব্যক্তির নাম দেবেশ বর্মন (৫০), তিনি গৌরী গ্রামপঞ্চায়েতের ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের বুথ সভাপতি ছিলেন। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ মর্গে পাঠানোর পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জ থানার গৌরী গ্রামপঞ্চায়েতের দক্ষিন বিষ্ণুপুর গ্রামের বাসিন্দা দেবেশ বর্মন প্রতিদিনের মতো সোমবার সন্ধ্যাতেও চা খেতে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। অনেক রাত হয়ে গেলেও দেবেশ বাবু বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকেরা তাঁকে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। মঙ্গলবার সকালে গ্রামের বাসিন্দারা বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে একটি গাছে দেবেশ বর্মনের ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান। দেবেশ বাবুর ঝুলন্ত মৃতদেহের মুখে তৃনমূল কংগ্রেসের পতাকা জড়ানো দেখতে পাওয়া যায়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। মৃত দেবেশ বর্মন ২০১৩ সালে রায়গঞ্জ ব্লকের ৯ নম্বর গৌরী গ্রামপঞ্চায়েতের সিপিআইএম এর নির্বাচিত পঞ্চায়েত সদস্য ছিলেন। ২০১৮ সালে তিনি দলবদল করে কংগ্রেসের হয়ে পঞ্চায়েত নির্বাচনে দাঁড়িয়ে পরাজিত হয়েছিলেন। বর্তমানে দেবেশ বর্মন ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের গৌরী অঞ্চলের বুথ সভাপতি ছিলেন। দেবেশ বাবুর ছেলে বিদ্রোহী বর্মন জানিয়েছেন, যারা আমার বাবাকে এভাবে মেরে ঝুলিয়ে দিয়ে খুন করেছে তাদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। যদিও পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে প্রাথমিকভাবে এই ঘটনার পেছনে রাজনৈতিক কোনও উদ্দেশ্য বা কারন থাকার প্রমান এখনও পর্যন্ত পায়নি। তবে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। এলাকার জনপ্রিয় কংগ্রেস নেতার এভাবে মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

46

Leave a Reply