Categories
আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা, মৃত ৩০, আহত বহু

ওয়েবডেস্কঃ পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে দুটি ট্রেনের মুখোমুখি ধাক্কায় প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে ৩০ যাত্রী। ভয়াবহ এই দুর্ঘটনার জেরে ৫০-এরও বেশি যাত্রী জখম হয়েছেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার সকালে লাইনচ্যুত একটি ট্রেনের সঙ্গে দ্রুতগামী অন্য ট্রেনটির সংঘর্ষ হয়। তার জেরেই ভয়াবহ এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনার পরেই যুদ্ধকালীন তৎপরতা শুরু হয় উদ্ধারকাজ। স্থানীয় প্রশাসন ও রেলের কর্তারা ছুটে যান ঘটনাস্থলে। দুর্ঘটনায় মৃতদের দেহ উদ্ধার করা হয়। জখম যাত্রীদের দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। উদ্ধারকাজে প্রশাসনের সঙ্গে হাত লাগান স্থানীয় বাসিন্দারাও।

জানা গিয়েছে, সোমবার সকালে পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের ঘোটকি জেলার ধারকির কাছে এই ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে। লাইনচ্যুত মিল্লাত এক্সপ্রেসে ধাক্কা দেয় তগামী স্যার সৈয়দ এক্সপ্রেস । বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। ট্রেনের যাত্রীদের আর্তনাদে আশপাশের এলাকা থেকে ছুটে আসেন বাসিন্দারা। স্থানীয়রাই প্রথম উদ্ধারকাজে হাত লাগান।

ট্রেনের বগিতে রক্তাক্ত অবস্থায় থাকা বহু যাত্রীকে তাঁরা উদ্ধার করেন। ততক্ষণে দুর্ঘটনার খবর পৌঁছে গিয়েছে প্রশাসনের কাছেও। এলাকায় ছুটে যায় সরকারি উদ্ধারকারী দল। ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ । আহত যাত্রীদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। দুর্ঘটনার জেরে কমপক্ষে ৩০ যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।
এদিকে, ভয়াবহ এই ট্রেন দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে ধন্দে পাক প্রশাসন। কেন ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়েছিল এবং কীভাবেই বা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলো তা এখনও পর্যন্ত পরিষ্কার নয়। তবে একাংশের অভিযোগ, পাকিস্তানে ট্রেন দুর্ঘটনা অহরহ ঘটে। কারণ, গোটা পাকিস্তানে রেলের সিগন্যালিং সিস্টেম এবং রেললাইনের প্রয়োজনীয় উন্নয়নে নজর দেয় না পাক সরকার ।
যেভাবে অন্য দেশগুলিতে আধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে রেল ব্যবস্থা মসৃণ করার চেষ্টা হয়, তেমন উদ্যোগ চোখে পড়ে না পাকিস্তানে। এমনকী রেল ট্র্যাকগুলির নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণও হয় না বলে অভিযোগ। ফল স্বরূপ প্রায়শই পাকিস্তানের বিভিন্ন প্রান্তে ছোটো-বড় রেল দুর্ঘটনা ঘটেই থাকে।

সংবাদসংস্থা ডনের প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, এদিন করাচি থেকে সারগোদায় যাচ্ছিল মিল্লাত এক্সপ্রেস ট্রেনটি। এই ট্রেনটিই কোনওভাবে লাইনচ্যুত হয়ে পড়ে। রেললাইন থেকে ছিটকে নেমে যায় ট্রেনটি। সেই সময় রাওয়ালপিণ্ডি থেকে দ্রুত গতিতে ছুটে আসছিল স্যার সৈয়দ এক্সপ্রেস ট্রেনটি। রাইতি রেল স্টেশনের কাছে দুই ট্রেনের মধ্যে ওই সংঘর্ষ হয়।

22

Leave a Reply