Categories
দেশের খবর

করোনায় নতুন নিদান স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

ওয়েব ডেস্ক জুন ৭,২০২১: করোনা অতিমারীর শুরুতে ছিল অনেক ধোঁয়াশা। বিশেজ্ঞদের মধ্যেও চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে ছিলো তীব্র দ্বিমত। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে একদিকে যেমন ভাইরাসের বিবর্তন ঘটেছে বিশ্বজুড়ে তেমনই চিকিৎসা পদ্ধতি ও ওষুধের ব্যবহার নিয়েও উঠে এসেছে একাধিক আপডেট। যেমন এবার রীতিমতো বিজ্ঞপ্তি জারি করে করোনা চিকিৎসায় এখন থেকে দুটি বিশেষ ওষুধের ব্যবহার বন্ধ করতে বললো স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বিশেষজ্ঞরা। এছাড়াও পজিটিভ হলেই জিঙ্ক, মাল্টিভিটামিনের মতো ওষুধও খাওয়ার প্রয়োজন নেই বলে জানালেন তাঁরা। আর এক নতুন গাইডলাইন প্রকাশ করে এসব পরামর্শ দিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের অধীনস্ত ডিরেক্টরেট অফ হেলথ সার্ভিস।

এতে বলা হয়েছে, করোনার মৃদু উপসর্গ বা উপসর্গহীন রোগীদের জন্য কোনও ওষুধই প্রয়োজন নেই। পাশাপাশি মাল্টিভিটামিন, জিঙ্ক ট্যাবলেটও মুঠোমুঠো খাওয়ার দরকার নেই। তাতে উপকারের চেয়ে বেশি অপকার হচ্ছে বলে মত চিকিৎসকদের একাংশের। প্রসঙ্গত
হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন বাদ পড়েছিল আগেই। এবার করোনা চিকিৎসায় ওষুধের তালিকার বাইরে চলে গেল আইভারমেকটিন ডক্সিসাইক্লিনের মতো বহুল ব্যবহৃত দুটো ওষুধ ও। এমনকি চিকিৎসকদের মতে সামান্য অসুস্থতা হলে প্রয়োজন নেই সিটি স্ক্যান বা অন্যান্য পরীক্ষারও। কারণ, দেখা গিয়েছে এ ধরনের পরীক্ষা অতিরিক্ত কিছু বিপদ ডেকে আনছে করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে। তাই এসবের বিপক্ষে মত দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। বরং মাস্ক, স্যানিটাইজার ব্যবহার, শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে চলার উপর বাড়তি গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে নতুন গাইডলাইনে। এছাড়া কোভিড পরবর্তী দৈনন্দিন জীবনে স্বাস্থ্যকর, পুষ্টিকর খাওয়াদাওয়ায় জোর দেওয়া হয়েছে। আসলে সময় যত যাচ্ছে, ততই বদলে যাচ্ছে নোভেল করোনা ভাইরাসের চরিত্র। মিউটেশনের ফলে তার নিত্যনতুন স্ট্রেন আরও ভয়াবহ হয়ে উঠছে। এই অবস্থায় তাকে ঘায়েল করতে চিকিৎসা পদ্ধতিতেও বদল আনতে হচ্ছে। তাই বারবার নয়া গাইডলাইন প্রকাশ করছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। সারা দেশে সেই পরামর্শ মেনেই চলছে কোভিডের চিকিৎসা। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের অধীনস্ত ডিরেক্টরেট অফ হেলথ সার্ভিসের এবার নতুন গাইডলাইনে ওষুধের উপর নির্ভরশীলতা কমানোর সুপারিশ করল। যদিও এই মুহূ্র্তে দেশে করোনা চিকিৎসায় রেমডেসিভির, 2 DG-সহ একাধিক ওষুধ ব্যবহারে ইতিমধ্যেই ছাড়পত্র দিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রকই। কিন্তু এবার বহুল প্রচলিত ওষুধের তালিকা থেকে কমলো আইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন।

62

Leave a Reply