Categories
দেশের খবর

দুই ব্যক্তির লালসার শিকার সদ্য করোনামুক্ত মা-মেয়ে

ওয়েবডেস্ক মে ৩১,২০২১: অসমের চা শ্রমিক গোষ্ঠীর সদস্য এক মহিলার করোনা রিপোর্ট গত ২৭ মে নেগেটিভ আসে।রিপোর্ট নেগেটিভ আসতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নির্দেশ ছিল বাড়ি ফিরে যাওয়ার কিন্তু অ্যাম্বুলেন্স চাইলেও তা দিতে অস্বীকার করে কর্তৃপক্ষ। এরপরই ২৫ কিলোমিটার দূরে হাসপাতাল থেকে হেঁটেই বাড়ি ফিরছিলেন তিনি ও তাঁর মেয়ে। আচমকাই দুই ব্যক্তি তাঁদের পিছু নেয়, কিছুদূর এগোতেই ওই মহিলাকে অপহরণ করে কাছেই অবস্থিত একটি চা বাগানে নিয়ে যাওয়া হয় এবং সেখানেই তাঁকে ধর্ষণ করা হয়।

ঘটনার দুইদিন বাদে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে গিয়ে নির্যাতিতার মেয়ে বলেন, “কিছুদিন আগেই আমাদের পরিবার করোনা আক্রান্ত হয়। প্রথমে হোম আইসোলেশনে থাকলেও পরে মা-বাবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় সকলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আমার ও মায়ের রিপোর্ট নেগেটিভ আসতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাদের বাড়ি ফিরে যেতে বলে। আমরা অ্যাম্বুলেন্স চাইলেও তারা সেই পরিষেবা দিতে অস্বীকার করে। আমরা রাতটুকু হাসপাতালে কাটানোর অনুরোধ করলেও তারা রাজি হননি। বাধ্য হয়েই আমরা কার্ফুর মাঝেই হেঁটে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিই। কিছুক্ষণ বাদে দুই ব্যক্তি অনুসরণ করতে শুরু করে। দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলেও ওঁরা মাকে ধরে ফেলে। আমি দৌড়ে গ্রামবাসীদের খবর দিতে যাই। দুই ঘণ্টা বাদে মাকে উদ্ধার করা হয়।”

অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কেশব মহান্তও গোটা ঘটনা জানতে পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং করোনামুক্ত সকল রোগীকে বাড়ি ফেরানোর জন্য অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন।

অন্যদিকে, স্থানীয় পুলিশ জানান, ওই মহিলার মেডিক্যাল টেস্ট করানো হয়েছে, সেই রিপোর্ট এখনও আসেনি। তবে অভিযোগের ভিত্তিতে একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের খোঁজ চলছে।

43

Leave a Reply