ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত মহিলার অপারেশন আজ

ওয়েব ডেস্ক মে ২৪,২০২১: ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের উপসর্গ নিয়ে কয়েকদিন ধরে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি রোগিনীর অস্ত্রোপচার প্রচার হতে চলেছে আজ। এদিন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসক ডঃ সন্দীপ সেনগুপ্ত জানান, ওই মহিলার মধ্যে আগে থেকেই বেশকিছু উপসর্গ ছিল।তা দেখেই মনে হয়েছিল তিনি ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে সংক্রমিত।যেকারনে মস্তিষ্কে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায় সেকারণেই তড়িঘড়ি তার অস্ত্রোপচার হবে।যে যে জায়গায় সংক্রমণ হয়েছে সেই অংশ কেটে বাদ দেওয়া হবে।তারপর ওষুধ দিয়ে ওই মহিলাকে সুস্থ করা হবে।

উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে শিলিগুড়ির প্রধাননগরের বাসিন্দা বছর আটচল্লিশের এক মহিলা ভরতি হয়েছিলেন হাসপাতালে। করোনামুক্ত হওয়ার পর তিনি বাড়িও ফিরে যান। তবে ফেরার ২ দিন পর থেকে নতুন উপসর্গ দেখা দেয় তাঁর শরীরে। মুখে কালো ছোপ, নাক-চোখ ফুলে যাওয়ার মতো একাধিক সমস্যা হতে থাকে। তাঁকে ফের নিয়ে আসা হয় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। প্রাথমিক পরীক্ষার পর চিকিৎসকদের ধারণা, করোনামুক্তির পর তাঁর শরীরে কালো ছত্রাক থাবা বসিয়েছে। তবে তাঁর নমুনা পরীক্ষা করতে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত এটি ব্ল্যাক ফাঙ্গাস কেস কি না, তা নিয়ে সম্পূর্ণ নিশ্চিত হতে পারছেন না চিকিৎসকরা।

অন্যদিকে কলকাতায় আরও তিনজনের শরীরে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থাবা বসিয়েছে বলে খবর। ৬২বছরের এক বৃদ্ধ করোনা আক্রান্ত হয়ে ভরতি ছিলেন মধ্য কলকাতার এক নামী হাসপাতালে। সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়ি ফেরার পর আবার অসুস্থ হন। হাসপাতাল সূত্রে খবর, করোনার কবল থেকে সেরে ওঠার পর তিনি ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া আরও ২ জন একই উপসর্গ নিয়ে ভরতি আলিপুর কমান্ড হাসপাতালে।

রবিবার সকালে রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডাঃ অজয় চক্রবর্তী ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নিয়ে পরিসংখ্যান দিতে গিয়ে জানান, রাজ্যে মোট ৭ জন ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত। তবে গতকাল দুপুর গড়াতেই সেই সংখ্যা নিশ্চিতভাবে বেড়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই কালো ছত্রাকের হানায় কলকাতায় প্রাণ গিয়েছে এক মহিলার। বাঁকুড়ায় ৩ জন আক্রান্ত হয়ে ভরতি হয়েছেন বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে। এবার কলকাতা ও শিলিগুড়িতেও আরও সংক্রমণের খবরে আতঙ্ক বাড়ছে সাধারণ মানুষের মনে।

177