৭/৪/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ চতুর্থ দফা ভোটের আগে কোচবিহারে নির্বাচনী সভায় গিয়ে বিস্ফোরক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি এদিন বলেন, ‘CRPF-কে ঘেরাও করে ভোট দিতে যান। কেন্দ্রীয় বাহিনী অশান্তির পাকানোর চেষ্টা করলে মহিলারা তাঁদের ঘেরাও করুন।’

এদিন কোচবিহারের জনসভা থেকে তৃতীয় দফার ভোটের হিংসা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘ভোট এলেই পুলিশ BJP হয়ে যায়। আরামবাগে আমাদের প্রার্থী সুজাতার উপর হামলা চালানো হয়েছে। ওখানকার OC-কে আমরা নজরে রাখছি।’ প্রসঙ্গত, তৃতীয় দফা নির্বাচনের সকালেই মমতা কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে সরব হন। টুইট করে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। এদিন ফের একবার কোচবিহারের জনসভা থেকে তিনি কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ‘একদিনের অতিথি’ বলে তোপ দাগেন। তাঁর আরও সংযোজন, ‘তাঁরা তো ভোট মিটে গেলেই চলে যাবেন। তারপর তো আমরা থাকব।’ এছাডা়ও এদিন মমতা নন্দীগ্রামের কথার পুনরাবৃত্তি করেন। তিনি বলেন, ‘কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশেই বাংলায় আধাসেনা অশান্তি করছে, ভোটারদের প্রভাবিত করছে।’

আধাসেনাকে সামলাতে কোচবিহারে মমতার এই দাওয়াই ইতিমধ্যেই বিতর্ক তৈরি করেছে রাজ্য-রাজনীতিতে। বক্তব্য প্রসঙ্গে BJP মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যত এই ধরণের মন্তব্য করবেন ততই BJP-র ভোট বাড়বে।’ শমীকের আরও মন্তব্য, ‘২০১১ সালের আগে তিনি নিজেই কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট করাতে চাইতেন। আট দফা নির্বাচন চাইতেন। তাহলে এখন কেন এমনটা বলছেন?’

30