৩/৪/২০২১,

ওয়েবডেস্কঃ অস্বস্তি বাড়াচ্ছে তাপপ্রবাহ। কিন্তু সপ্তাহান্তে রয়েছে কালবৈশাখীর সম্ভাবনাও।

বেড়েই চলেছে তাপমাত্রার পারদ। চৈত্রে বাড়তে থাকা তাপমাত্রার দাপটে জেরবার সাধারণ মানুষ। এই পরিস্থিতিতে কিছুটা আশার কথা শোনাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। শনি ও রবিবার দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে চলবে তাপপ্রবাহও।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, বাঁকুড়া, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় চলবে তাপপ্রবাহ। কিন্তু, কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলিতে বিকেলে দিকে হতে পারে বৃষ্টিপাত। সঙ্গে বইবে ঝোড়ো হাওয়াও। অর্থাৎ সপ্তাহের শেষে মরশুমের প্রথম কালবৈশাখী পেতে পারেন সাধারণ মানুষ। পাশাপাশি আগামী দু’তিনদিন কিছুটা কমবে তাপমাত্রার পারদ। শনিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিন বাতাসে সর্বাধিক জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ছিল ৯০ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন ৩৪ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, গত ১০ বছর ধরে বাংলায় তাপপ্রবাহ শুরু হত মে মাস থেকে। কিন্তু এই বছর তাপপ্রবাহের প্রকোপ শুরু হয়েছে মার্চ থেকেই। প্রয়োজনীয় বৃষ্টির অভাবেই এত গরম পড়ছে বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া বিভাগ। এছাড়াও আবহাওয়ায় শুষ্কতার মাত্রা বেড়েছে। আশঙ্কার বাণী শুনিয়েছে IMD। এপ্রিল জুড়ে বইবে লু অর্থাৎ গরম বাতাস। গত ৭৬ বছরের রেকর্ড ভেঙে মার্চে দিল্লির তাপমাত্রা পৌঁছয় ৪০.১ ডিগ্রিতে। উত্তর ও পশ্চিম ভারতের বেশ কিছু রাজ্যেও তাপমাত্রা বেড়েছে চোখে পড়ার মতো। এদিকে উত্তর সিকিমের বেশিরভাগ জায়গায় শনিবার রয়েছে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।

39