Categories
দেশের খবর

দাড়ি কামানোর ব্লেড দিয়ে প্রসবের চেষ্টা হাতুড়ে ডাক্তারের : মৃত প্রসূতি ও শিশু

ওয়েব ডেস্ক মার্চ ২০,২০২১: দাড়ি কামানোর ব্লেড দিয়ে প্রসবের চেষ্টা করার ফলে মর্মান্তিক মৃত্যু হল প্রসূতি ও শিশুর। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত এক অষ্টম শ্রেণির গণ্ডি পেরোতে না পারা হাতুড়ে ডাক্তার। পুলিশ ইতিমধ্যেই ওই যুবক ও অবৈধ হাসপাতালটির মালিককে গ্রেপ্তার করেছে। ঘটনায় প্রবণ বিক্ষোভের বৃষ্টি হয়েছে উত্তরপ্রদেশের সুলতানপুরে।

পুলিশ সূত্রের খবর, মা সারদা হাসপাতাল নামের ওই হাসপাতালটি অবৈধ। সেখানে যারা কাজ করে সকলেই হাতুড়ে ডাক্তার। যারা নার্সের কাজ করে তাদেরও কারও কোনও রকম প্রশিক্ষণ নেই। এমনই এক অবৈধ হাসপাতালের ব্যবসা ফেঁদে বসেছিল অভিযুক্ত রাজেশ সাহানি। সেখানকার অন্যতম এক কর্মী রাজেন্দ্র শুক্লা। তিনি অষ্টম শ্রেণীর গণ্ডিই পেরোতে পারেননি। কিন্তু সন্তান প্রসবের দায়িত্ব ছিল তারই উপরে! এই পরিস্থিতিতে সেখানে আসেন ওই অন্তঃসত্ত্বা মহিলা। সি সেকশন পদ্ধতিতে প্রসব করাতে গিয়ে দাড়ি কামানোর ব্লেড ব্যবহার করে অভিযুক্ত রাজেন্দ্র।

সিজারের জন্য পেট কাটার পরই অপারেশনের টেবিলে রীতিমতো রক্তারক্তি অবস্থা তৈরি হয়। রক্তক্ষরণ বাড়তে থাকায় অভিযুক্ত রাজেন্দ্র বুঝতে পারে পরিস্থিতি হাতের নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে। তখন মহিলার স্বামীকে সে বলে, তাঁর স্ত্রীকে এখনই প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যেতে হবে। তাঁকে দ্রুত লখনউয়ের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

স্ত্রীর মৃত্যুর পরে স্বামী রাজারাম দ্রুত পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরই পুলিশ হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে দুই অভিযুক্তকে। এই ধরনের হাসপাতালগুলির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইতিমধ্যেই মুখ্য মেডিক্যাল অফিসারের কাছে চিঠি লিখেছে পুলিশ।

63

Leave a Reply