মোটেই সুখে নেই ভারতবাসী। ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট ২০২১ এ এমন তথ্যই উঠে এসেছে। ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট ২০২১ তালিকায় পৃথিবীর উন্নত ও উন্নয়নশীল ১৪৯ টি দেশের মধ্যে ১৩৯ নম্বরে রয়েছে ভারত। এমনটাই বলছে রাষ্ট্রসংঘের সমীক্ষা। রাষ্ট্রসংঘের সুস্থ উন্নয়নমূলক সমাধান সংক্রান্ত নেটওয়ার্কের সমীক্ষা অনুযায়ী, বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ড। টানা বছর ধরে শীর্ষ স্থানে স্ক্যান্ডানেভিয়ান দেশ। ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট অনুযায়ী, এই রিপোর্ট ভারতের জন্য মোটেও সুখকর নয়।

ভারতের মতো বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের জন্য এমন বিজ্ঞাপন মোটেও ভাল লক্ষণ নয়। এই তালিকায় প্রথম দশটি দেশের মধ্যে ৯টি ইউরোপের। ফিনল্যান্ড, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড, আইসল্যান্ড, দ্য নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, সুইডেন, লুক্সেমবর্গ, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রিয়া। কিন্তু ভারত রয়েছে ১৩৯ নম্বরে। এমনকী পড়শি দেশ পাকিস্তানও ভারতের উপরে রয়েছে তালিকায়।

প্রসঙ্গত, তিনটি প্রধান সূচকের উপর নির্ভর করে ব্যক্তিগত ভালো থাকার মূল্যায়ন করা হয় এই রিপোর্টে। এগুলি হলো জীবন মূল্যায়ন, ইতিবাচক আবেগ এবং নেতিবাচক আবেগ।।এছাড়াও দেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার বা জিডিপি, সামাজিক অবস্থা, ব্যক্তি স্বাধীনতা, দুর্নীতির মাত্রা-সহ একাধিক বিষয়ের উপর সমীক্ষা চালানো হয়। তবে এই বছর করোনা অতিমারীর মতো চ্যালেঞ্জকেও সমীক্ষায় গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষের আর্থ-সামাজিক জীবনে এই অতিমারীর জেরে যা প্রভাব পড়েছে তাও উঠে এসেছে সমীক্ষায়।

অন্যতম সমীক্ষক জেফ্রি সাখস জানিয়েছেন, ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট অনুযায়ী যা উঠে এসেছে তাতে বলা যায়, সম্পদ বাড়ানোর থেকে সরকারের উচিত সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন করা। তাতে দেশের খুব উন্নতি না হলেও সাধারণ মানুষের জীবনে সুখ থাকবে। দেশের সরকারের উপর নাগরিকের বিশ্বাস হল সুখ মাপার বড় মাপকাঠি। দেশের সরকার-প্রতিষ্ঠানের উপর নাগরিকের যত আস্থা বাড়বে এবং রোজগার যত ভাল হবে ততই সুখী হবেন মানুষ।

120